২৩, মার্চ, ২০১৯, শনিবার | | ১৬ রজব ১৪৪০

বিমানবন্দরে নায়িকা, কিভাবে বেরিয়ে এলো ইয়াবা!

মডেলিং, রুপালী পর্দায় অভিনয় সবই করেছেন তিনি। রীতিমত সেলিব্রেটি। তাই সাধারণ তল্লাশি করেই এই অভিনেত্রীকে ছেড়ে দিচ্ছিলেন বিমানবন্দরের নিরাপত্তাকর্মীরা। কিন্তু হঠাতই ওই অভিনেত্রীর চুলের পরিপাটি খোঁপায় চোখ পড়ে যায় এক নিরাপত্তাকর্মীর। আর সেই খোঁপা খুলতেই বেরিয়ে এলো নিষিদ্ধ মাদক ইয়াবা। সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মুম্বাই বিমানবন্দরে। ভারতীয় সংবাদ ম্যাধমের খবর, ওই সেলিব্রেটি তরুণীকে সাধারণ তল্লাশি শেষে প্রায় ছেড়েই দিচ্ছিলেন সিআইএসএফ (সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্স) কর্মীরা। এ সময় অভিজ্ঞ এক সিআইএসএফ কর্মীর সন্দেহ হয় যে, তিনি তার চুলের খোঁপায় কিছু একটা লুকিয়েছেন। সিআইএসএফ সূত্রে জানায়, প্রথমে খোঁপা খুলে দেখাতে রাজি হননি ওই অভিনেত্রী। পরে সিআইএসএফ কর্মীর চাপে খোঁপা খুলতেই বেরিয়ে আসে প্লাস্টিকের একটি প্যাকেট। সেই প্যাকেট থেকে পাওয়া রঙিন ট্যাবলেটগুলো বিশেষজ্ঞদের দ্বারা পরীক্ষা করে নিশ্চিত হয় যে, সেগুলো নিষিদ্ধ মাদক ‘ইয়াবা’। এরপর নিষিদ্ধ মাদক বহনের অপরাধে তাকে নারকোটিক কন্ট্রোল ব্যুরোর (এনসিবি) হাতে তুলে দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে সিআইএসএফ সূত্র। তবে মাদক পাচারে জড়িত নন দাবি জানিয়ে ওই অভিনেত্রী দাবি করেন, তিনি একবারই মাদকটি ব্যবহার করেছেন। দ্বিতীয়বারের জন্য এটি ব্যবহার করতে নিয়ে যাচ্ছিলেন। এ ঘটনার তদন্তকারী অফিসার জানান, কলকাতার একটি পাঁচতারা হোটেলের ডিস্কো পার্টিতে এ মাদক নিয়েছেন এই অভিনেত্রী। এরপর সেখান থেকেই এটি সংগ্রহ করে মুম্বাই ফিরছিলেন। তদন্তকারীর জিজ্ঞাসাবাদে ওই পার্টিতে কলকাতা ও মুম্বাইয়ের মডেলিং এবং ফ্যাশন জগতের অনেক জনপ্রিয় সেলিব্রেটিরা উপস্থিত ছিলেন বলে জানিয়েছেন ওই অভিনেত্রী। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়, টালিউডের জনপ্রিয় মুখ এই অভিনেত্রী। ২০০৯ সাল থেকে একাধিক বাংলা ছবিতে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। গত পাঁচ বছর ধরে মুম্বাইয়ে থাকছেন তিনি। সেখানে মডেলিংয়ের পাশাপাশি বেশ কয়েকটি তেলুগু ছবিতে নায়িকা চরিত্রে অভিনয় করেছেন।