২২, জুলাই, ২০১৯, সোমবার | | ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪০

আপনার স্মার্ট টেলিভিশন হ্যাক হতে পারে!

আপডেট: জুলাই ১১, ২০১৯

আপনার স্মার্ট টেলিভিশন হ্যাক হতে পারে!
শুধু স্মার্টফোন নয়, টিভি থেকে লাইট সবই এখন স্মার্ট। তবে এই স্মার্ট গ্যাজেটের যুগে সমস্যাও রয়েছে অনেক। সমস্যা কিন্তু ছোটোখাটো নয়, রীতিমতো ভয়ংকর। ফেসবুক কিংবা মেইল অ্যাকাউন্ট যেমন হ্যাক হয়, তেমনই ব্যক্তিগত জীবনও হ্যাক হয়ে যেতে পারে। সম্প্রতি ভারতে এমন একটি ঘটনা ঘটে। গুজরাতের সুরাতে এক দম্পতির সঙ্গে তেমনই ঘটনা ঘটেছে। ঐ দম্পতির বাড়িতে রয়েছে স্মার্ট টিভি। সেই টিভিতেই সুরাতের বাসিন্দা এক ব্যক্তি দেখেন তাঁর ও তাঁর স্ত্রীর ভিডিও দেখা যাচ্ছে পর্নো সাইটে। তাঁদের ব্যক্তিগত সময়ের ফুটেজ চলে গিয়েছে ঐ সাইটে। যা দেখে চমকে ওঠেন তিনি। খবর দেন পুলিশে। সাইবার সিকিউরিটি এক্সপার্টরাও চমকে যান এই কথা শুনে। সাইবার পুলিশ তদন্তের জন্য ঐ দম্পতির বাড়িতে আসেন। প্রথমটায় তাঁরা ভেবেছিলেন যে, ঐ অ্যাপার্টমেন্টে কোনো লুকনো ক্যামেরা রয়েছে, আর তাতেই দম্পতির ফুটেজ উঠে গিয়েছে আর সেটাই কোনোভাবে লিক হয়ে গিয়েছে। কিন্তু, বিশেষজ্ঞরা অনেক খুঁজেও কোনো ক্যামেরার সন্ধান পাননি। পরে, তাঁদের চোখ পড়ে ঘরে থাকা স্মার্ট টিভিতে। এরপরই বিষয়টা ক্রমশ পরিষ্কার হতে থাকে তাঁদের কাছে।

জানা যায়, ঐ ব্যক্তি মাঝে-মধ্যেই পর্নো সাইট দেখতেন ঐ স্মার্ট টিভিতে। আর সেরকমই কোনো একটা সাইট থেকে হ্যাকার ঢুকে পড়ে। সেই হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে টিভিতে থাকা ক্যামেরা ব্যবহার করতে পারে সহজেই। ঠিক যেভাবে কম্পিউটার হ্যাক হয়, সেভাবেই। সেই ক্যামেরাতেই বন্দি হয় দম্পতির ব্যক্তিগত জীবন। যেহেতু টিভিটি ওয়াই-ফাই এনেবল ছিল, তাই দূরে বসেই টিভির ক্যামেরা থেকে লাইভ ভিডিও পেয়ে যায় ঐ হ্যাকার। এরপর সেই ঘনিষ্ঠ অবস্থার দৃশ্য আপলোড করা হয় পর্নো সাইটে। এই বিষয়টা সামনে আসার পরই সাইবার সিকিউরিটি এক্সপার্টরা ঐ ওয়েবসাইট থেকে দৃশ্যটি ডিলিট করে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন। কিন্তু আগামীতে এই ধরনের স্মার্ট ডিভাইস ব্যবহার করা কতটা নিরাপদ হবে, সেই প্রশ্ন জেগেছে সংশ্লিষ্টদের মনে।