১৮, জুন, ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

উদ্যোক্তাদের প্রশিক্ষিত করতে স্যোসাল এন্ট্রাপ্রেনারশিপ ১০১

আপডেট: মার্চ ২৭, ২০১৯

উদ্যোক্তাদের প্রশিক্ষিত করতে স্যোসাল এন্ট্রাপ্রেনারশিপ ১০১

প্রচলিত ব্যবসায়িক ধারণা ভেদ করে নিত্য নতুন আইডিয়া নিয়ে হাজির হচ্ছেন তরুণ উদ্যোক্তারা। কিন্তু ঠিক নিদের্শনা ও প্রেরণার অভাবে তারা অকালেই ঝড়ে পড়ছেন। প্রাতিষ্ঠানিকভাবে উদ্যোক্তা বিষয়ক সুশিক্ষা ও প্রশিক্ষণের স্বল্পতা আমাদের দেশের প্রাক্তন উদ্যোক্তারা হাড়ে হাড়ে উপলব্ধি করছেন। সেজন্যেই সামাজিক উদ্যোক্তা বিষয়ক দেশের একমাত্র যুব সংগঠন, ইয়ুথ স্কুল ফর স্যোসাল এন্ট্রাপ্রেনারস (ওয়াই.এস.এস.ই) এগিয়ে এসেছে এই প্রেক্ষাপটে। গত ২২ মার্চ রাজধানীর পান্থপথের এসইএল সেন্টারে তাদের সুবিন্যস্ত প্রশিক্ষণের প্রথম ব্যাচের ক্লাস সম্পন্ন হয়। “স্যোসাল এন্ট্রাপ্রেনারশিপ ১০১: স্টার্ট এন্ড গ্রো ইউর বিজনেস” নামক দিনব্যাপী এই প্রশিক্ষণ পর্বের ৫টি উদ্যোক্তা সংক্রান্ত বিষয়ভিত্তিক পাঠ প্রদান করা হয়।

প্রশিক্ষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডক্টরোলা ডট কম-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী, মোহাম্মদ আব্দুল মতিন ইমন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক ও গিকী স্যোসাল এর সহপ্রতিষ্ঠাতা, মো: সায়মুম হোসাইন, সিএফএ, নগদ- এর হেড অব ব্রান্ডিং, মনসুরুল আজিজ এবং ইটস হিউম্যানিটি ফাউন্ডেশন-এর নির্বাহী পরিচালক, ফাতেমা তুজ জোহরা। গুরুত্বপূর্ণ একটি সেশনে কথা বলার জন্য কনফারেন্স কলিং এর মাধ্যমে যুক্ত হন স্টার্ট আপ বাংলাদেশের উপদেষ্টা, টিনা এফ. জাবিন।

সুনিপুণ বাছাইপর্বের মধ্য দিয়ে প্রশিক্ষণার্থী নির্বাচিত করা হয়। সকল প্রশিক্ষণার্থী আগামী ২ মাস বিশেষ মেন্টরশিপ প্রোগ্রামের আওতায় নিজের বিজনেস আইডিয়া নিয়ে কাজ করবেন। দেশীয় তরুণ উদ্যোক্তাদের সচেতন ও সুশিক্ষিত করে গড়ে তুলতে প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই বলে মনে করেন, ওয়াই.এস.এস.ই-এর প্রেসিডেন্ট ও প্রতিষ্ঠাতা, শেখ মোহাম্মদ ইউসুফ হোসেন। যে উদ্যোক্তারা উক্ত প্রশিক্ষণ কর্মসূচির মাধ্যমে উদ্যোক্তা জগতে প্রবেশ করল তাদেরকে নিয়ে ওয়াই.এস.এস.ই-এর আরো সুবৃহৎ পরিকল্পনা আছে বলে তিনি জানান।