২২, জুলাই, ২০১৯, সোমবার | | ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪০

উন্নয়ন লক্ষ্যগুলো বাস্তবায়নে চাই নীতির ধারাবাহিকতা এবং দক্ষ বাস্তবায়ন: ড. আতিউর রহমান

আপডেট: জুন ১৯, ২০১৯

উন্নয়ন লক্ষ্যগুলো বাস্তবায়নে চাই নীতির ধারাবাহিকতা এবং দক্ষ বাস্তবায়ন: ড. আতিউর রহমান

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর অধ্যাপক ড. আতিউর রহমান বলেছেন, ‘আমাদের সামনে ২০৩০ সালের মধ্যে বিশ্বের ২৬-তম বৃহত্তম অর্থনীতির হওয়ার এবং ২০৪১ সালের মধ্যে একটি উচ্চ আয়ের দেশে পরিণত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ সম্ভাবনাকে বাস্তবে রূপ দিতে চাই জাতীয় সামষ্টিক-অর্থনৈতিক লক্ষ্যগুলোর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নীতি প্রণয়ন, এই নীতিগুলোর কার্যকর বাস্তবায়নের রাজনৈতিক সদিচ্ছা, এবং সর্বোপরি দরকার অন্তর্ভুক্তিমূলক ও টেকসই উন্নয়ন অভিযাত্রা অব্যাহত রাখা। ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য যে বাজেট প্রস্তাব করা হয়েছে তা যেমন ক্ষমতাসীন দলের নির্বাচনী ইশতেহারের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ, তেমনি এতে বিরাজমান ভূ-রাজনৈতিক বাস্তবতার প্রতিফলনও ঘটানো হয়েছে।’

মঙ্গলবার (১৮ জুন) কুমিল্লায় বাংলাদেশ একাডেমি ফর রুরাল ডেভেলপমেন্ট (বার্ড)-এ এক বিশেষ বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। ‘বাংলাদেশের সামষ্টিক অর্থনৈতিক রূপান্তর: টেকসই উন্নয়ন অভিযাত্রায় কাউকে পেছনে ফেলে নয়” শিরোনামে এ বক্তৃতার শ্রোতা ছিলেন প্রশিক্ষণরত তরুণ বিসিএস কর্মকর্তাবৃন্দ। বক্তৃতা শেষে ড. আতিউর বার্ড-এর মহাপরিচালক ড. মিজানুর রহমানের সাথে এক বিশেষ বৈঠকে বিসিএস কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের বিভিন্ন দিক এবং পল্লী উন্নয়ন গবেষণার বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেন। পরে তিনি বঙ্গবন্ধু কৃষি পদক বিজয়ী কৃষি উদ্যোক্তা জনাব মঞ্জুরের কৃষি খামার পরিদর্শনে যান। জনাব মঞ্জুরের কৃষি বিষয়ক উদ্ভাবনী উদ্যোগের প্রশংসা করে ড. আতিউর রহমান বলেন যে, কৃষি গবেষকদের এ ধরণের উদ্যোগগুলোর সাথে গভীর যোগাযোগ রাখা দরকার, কারণ কৃষি খাতে বৈচিত্র যুক্ত করার মাধ্যমে এ ধরণের উদ্যোগগুলো দেশের কৃষির বিকাশে ব্যাপক অবদান রাখছে।