২৩, মার্চ, ২০১৯, শনিবার | | ১৬ রজব ১৪৪০

ঘুমের ওষুধ মেশানো মিষ্টি খায়িয়ে বন্ধুসহ শ্যালিকাকে ধর্ষণ

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৯

ঘুমের ওষুধ মেশানো মিষ্টি খায়িয়ে বন্ধুসহ শ্যালিকাকে ধর্ষণ

টাঙ্গাইলের সখীপুরে ঘুমের ওষুধ মেশানো মিষ্টি খায়িয়ে বোন জামাই ও তার বন্ধু রাতভর শ্যালিকাকে ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এঘটনায় পুলিশ ধর্ষক বোন জামাইকে আটক করলেও অপর আসামী পলাতক রয়েছে। উপজেলার প্রতিমাবংকী পশ্চিমপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ২০ ফেব্রুয়ারি ধর্ষিতার বাবা বাদী হয়ে সখীপুর থানায় মামলা করলে পুলিশ ওই দিনই ধর্ষক বোন জামাই আমিনুর রহমানকে গ্রেফতার করে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ১৬ ফেব্রুয়ারি শনিবার রাত ৮টার দিকে পূর্বপরিকল্পিতভাবে উপজেলার বগাপ্রতিমা গ্রামের মৃত আবুল কালামের ছেলে মোঃ আমিনুর রহমান তার বন্ধুকে নিয়ে শ্বশুড় বাড়ি একই উপজেলার প্রতিমাবংকী পশ্চিমপাড়া গ্রামে যান। তাদের দেয়া ঘুমের ওষুধ মিশ্রিত মিষ্টি জুস খেয়ে বাড়ির সবাই অচেতন হয়ে পড়ে। পরে বোন জামাই আমিনুর ও তার বন্ধু মিলে স্কুল পড়ুয়া শ্যালিকাকে রাতভর পালাক্রমে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়।

দুইদিন পর গত ১৮ ফেব্রুয়ারি সোমবার তাদের জ্ঞান ফিরলে তাদেরকে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় ধর্ষিতার বাবা জামাতা আমিনুর রহমানসহ দুইজনকে আসামি করে সখীপুর থানায় ধর্ষণ মামলা করে। পরে ২০ ফেব্রুয়ারি বুধবার মামলার প্রধান আসামি ধর্ষক আমিনুর রহমানকে গ্রেফতার করে।

সখীপুর থানার ওসি (তদন্ত) মো লুৎফুল কবির বলেন, ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি আমিনুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়েছে, অপর আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। ধর্ষিতার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়।