২৬, জুন, ২০১৯, বুধবার | | ২২ শাওয়াল ১৪৪০

চট্টগ্রামে পাটকল শ্রমিকদের নয় দফা দাবি আদায়ে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট

আপডেট: এপ্রিল ১৫, ২০১৯

চট্টগ্রামে পাটকল শ্রমিকদের নয় দফা দাবি আদায়ে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট

চট্টগ্রাম  নয় দফা দাবি আদায়ে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট ও প্রতিদিন চার ঘণ্টা করে রাজপথ-রেলপথ অবরোধ কর্মসূচি শুরু করেছে পাটকল শ্রমিকরা।   সোমবার চট্টগ্রামের কয়েকটি স্থানে রাজপথ-রেলপথ অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন তারা।

জানা গেছে, সকাল থেকে চট্টগ্রাম নগরীর বায়েজিদ থানার আমিন ‍জুটমিলের সামনের সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে শ্রমিকরা। এতে করে রাস্তায় যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। আমিন জুটমিলের ভেতর দিয়ে যাওয়া চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় রেললাইনে শ্রমিকরা অবরোধ করায় শাটল ট্রেন বন্ধ রয়েছে। একই দাবিতে সীতাকুণ্ডেরও বিক্ষোভ করছে শ্রমিকরা।

শ্রমিক নেতারা জানান, বকেয়া বেতন, মজুরি কমিশন, গ্রাচুইটি, পিএফ’র টাকা প্রদানসহ নয় দফা দাবিতে আজ থেকে লাগাতার ৯৬ ঘণ্টার মিল ধর্মঘট শুরু হয়েছে। সকাল ৬ টা থেকে শ্রমিকরা কাজে যোগ দেয়নি। নয় দফা দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে পূর্ব ঘোষিত ৯৬ ঘণ্টার মিল ধর্মঘট আজ থেকে শুরু হয়।

সকাল থেকে শ্রমিকরা হাফিজ জুট মিলস প্রাঙ্গণে মিছিল সমাবেশ অব্যাহত রেখেছে। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলায় মিল এলাকায় শিল্প পুলিশ ও সীতাকুণ্ড মডেল থানার বিপুল সংখ্যক পুলিশ অবস্থান করছে। এছাড়া মিল এলাকায় জলকামান ও সাজোয়াযান প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে সীতাকুণ্ড উপজেলার হাফিজ জুট মিলস, গুল আহম্মদ জুট মিলস, আর আর জুট মিল গালফ্রা হাবিব এবং এম.এম জুট মিলস এর হাজার হাজার শ্রমিকরা কারখানার বন্ধ রেখে আন্দোলন অব্যাহত রেখেছে।

বাংলাদেশ পাটকল শ্রমিক লীগ ও সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্য পরিষদ এই কর্মসূচি আহ্বান করে।

শ্রমিকরা জানান, বিগত চার বছর ধরে বিজেএমসি মজুরি কমিশনসহ তাদের দাবি পূরণের কথা বললেও তা বাস্তবায়ন করেনি। এছাড়া বকেয়া মজুরি, পিএফ’র টাকা প্রদান ও বদলি শ্রমিকদের স্থায়ীকরণের বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। এ কারণে দাবি আদায়ে ৯৬ ঘণ্টা ধর্মঘটের কর্মসূচি দেওয়া হয়। পাটকলগুলোতে শ্রমিকদের ৮ সপ্তাহের মজুরি ও কর্মচারীদের দুই মাসের বেতন বকেয়া রয়েছে। আর্থিক সঙ্কটে কাঁচা পাট কিনতে না পারায়, পাটকলগুলোতে উৎপাদনে ধস নেমেছে।