২৩, মে, ২০১৯, বৃহস্পতিবার | | ১৮ রমজান ১৪৪০

থ্যালাসেমিয়া রোগীদের রক্ত যোগানে “মোবাইল ব্লাড কালেকশন ভ্যান”

আপডেট: জানুয়ারি ৭, ২০১৯

থ্যালাসেমিয়া রোগীদের রক্ত যোগানে “মোবাইল ব্লাড কালেকশন ভ্যান”

বাংলাদেশ থ্যালাসেমিয়া সমিতি হাসপাতাল প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হল “মোবাইল ব্লাড কালেকশন ভ্যান” এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। বাংলাদেশ ব্যাংক এর দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও সামাজিক দায়বদ্ধতা তহবিল এর অর্থায়নে এ মোবাইল ব্লাড কালেকশন ভ্যান এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে আছে বাংলাদেশ থ্যালাসেমিয়া সমিতি হাসপাতাল। এ মোবাইল ব্লাড কালেকশন ভ্যান থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত রোগীদের জন্য দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে রক্ত যোগান দিতে রক্ত দাতাদের কাছে পৌঁছে যাবে সহজেই।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংক এর উপ পরিচালক দিনেশ কুমার নন্দী, যুগ্ম পরিচালক রাবেয়া খন্দকার, সিমুড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ইয়ুথ ক্লাব অব বাংলাদেশ এর উপদেষ্টা ডাঃ জাহিদুর রশিদ সুমন, বাংলাদেশ থ্যালাসেমিয়া সমিতি হাসপাতাল এর সভাপতি ওমর গোলাম রব্বানী, ট্রেজারার ইঞ্জিঃ মোশাররফ হোসেন, সি ও ও ডাঃ এ কে এম একরামুল হোসেন স্বপন, চীফ মেডিকেল অফিসার ডাঃ কবিরুল ইসলাম সহ প্রতিষ্ঠানের সাথে সংশ্লিষ্ট সকল কর্মকর্তা বৃন্দ। এছাড়াও উক্তও অনুষ্ঠানে ইয়ুথ ক্লাব অব বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক সানজিদা নেতৃত্বে ক্লাবের সদস্যবৃন্দ।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন ডঃ এ কে এম একরামুল হোসেন স্বপন। তিনি বাংলাদেশ ব্যাংক এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। বলেন, সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় একদিন বাংলাদেশ থ্যালাসেমিয়া মুক্ত হবে।

থ্যালাসেমিয়া রোগীদের অভিভাবকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ থ্যালাসেমিয়া সমিতি হাসপাতাল ট্রেজারার ইঞ্জিঃ মোশাররফ হোসেন, রোগীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য প্রদান করেন ফারিহা তাসনিয়া।

বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে আগত অতিথি বৃন্দ বাংলাদেশ থ্যালাসেমিয়া সমিতির কর্মকান্ডের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তারা তাদের বক্তব্যের মাধ্যমে আশাবাদ ব্যক্ত করেন এ মোবাইল ব্লাড কালেকশন ভ্যানের মাধ্যমে থ্যালাসেমিয়া রোগীরা সহজেই তাদের কাঙ্খিত রক্তদাতার কাছে পৌছাতে পারবে এবং প্রতিষ্ঠানের মহতী কাজ ত্বরানিত হবে।

সবশেষে বাংলাদেশ থ্যালাসেমিয়া সমিতি হাসপাতাল এর সভাপতি ওমর গোলাম রব্বানী সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং সকলকে নিয়ে মোবাইল ব্লাড কালেকশন ভ্যান এর শুভ উদ্বোধন করেন। এসময় একজন রক্তদাতা তার মূল্যবান রক্ত থ্যালাসেমিয়া রোগীকে দান করেন।

উল্লেখ্য, থ্যালাসেমিয়া একটি রক্তশূন্যতা জনিত বংশগত রোগ। বাবা মা উভয়েই এ রোগের বাহক হলে সন্তান এ রোগ নিয়ে জন্ম নিতে পারে। এ রোগে আক্রান্ত রোগীদের অন্যের রক্ত নিয়ে বেঁচে থাকতে হয়। তাই এ রোগীদের জন্য প্রতিনিয়ত রক্তদাতা দরকার। এর এই রক্তদাতাদের কাছে দ্রুততম সময়ে পৌঁছে যেতে মোবাইল ব্লাড কালেকশন ভ্যান খুবই সহায়ক হবে। বাংলাদেশে শতকরা ১০ ভাগ থ্যালাসেমিয়া ও হিমোগ্লবিন-ই বাহক। প্রতি বছর প্রায় ১৫০০০ শিশু এই রোগ নিয়ে জন্ম গ্রহণ করে। এছাড়াও মোবাইল ব্লাড কালেকশন ভ্যান উদ্ভোদন পরে থ্যালাসেমিয়া রোগীদের জন্য হাসপাতাল প্রাঙ্গনে স্বেচ্ছায় রক্ত দান কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়।