১৭, জুন, ২০১৯, সোমবার | | ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

নুসরাতের হত্যাকারীদের কাউকে ছাড় নয়: প্রধানমন্ত্রী

আপডেট: এপ্রিল ১২, ২০১৯

নুসরাতের হত্যাকারীদের কাউকে ছাড় নয়: প্রধানমন্ত্রী

ফেনীর সোনাগাজী মাদ্রাসারছাত্রী নুসরাত জাহানের হত্যাকারীরা ছাড় পাবে না; বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ শুক্রবার বিকেলে গণভবনে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের বৈঠকে এ কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী নুসরাতের মর্মান্তিক মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, ‘আমরা তাকে সুস্থ করে তোলার সব ধরণের চেষ্টা করেছি, উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সিঙ্গাপুর পাঠানোর জন্যও বলা হয়, তবে সিঙ্গাপুর থেকে সায় না পাওয়ায় সেখানে তাকে নেয়া হয়নি।’

তিনি বলেন, বিনা কারণে নির্মমভাবে ওই মাদ্রাসাছাত্রীকে হত্যা করা হলো। এ ঘটনায় ইতিমধ্যে কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, জড়িত অন্যান্যদেরও আইনের আওতায় আনা হবে, তাদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি পেতে হবে।

গায়ে আগুন লাগিয়ে নুসরাতকে হত্যা করা হয়েছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘জীবন্ত মানুষের গায়ে আগুন দেয়ার পথটা বিএনপি দেখিয়ে গেছে। বাস, ট্রাক,লঞ্চ এমন কি প্রাইভেটকার থেকে চালককে নামিয়ে তার গায়ে আগুন ধরিয়ে দিয়ে হত্যা করা শিখিয়েছে বিএনপি-জামায়ত। ২০১৫ সালে আওয়ামী লীগ সরকার উৎখাত করতে অগ্নিসন্ত্রাস শুরু করে বিএনপি।’

বনানীর এফ আর টাওয়ারে উদ্ধার কাজ চালানোর সময় আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সিঙ্গাপুরে মারা যাওয়া ফায়ার সার্ভিস কর্মী সোহেল রানার জন্যও শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।

কোনো দুর্ঘটনায় অতিউৎসাহী না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘সেলফি তুলতে যাবার মত এমন কোন রোমাঞ্চকর ঘটনা সেখানে ঘটে না যে সেখানে যেয়ে ভিড় করতে হবে। অযথা ভীড় বাড়ানো মানুষজন উদ্ধার কাজের বাধা হয়ে দাড়ায়।’

ভবন মালিকদের দায়িত্বের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, যারা বাড়ি-ঘর অফিস আদালত ব্যবহার করেন, তাদের দায়িত্ব অগ্নিনির্বাপনের ব্যবস্থা রাখা। আমাদের দেশের আবহাওয়ার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে বাড়ি-ঘরের ডিজাইন করার কথাও বলেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘আমি যখন সরকার গঠন করি তখন ফায়ার সার্ভিসের কিছুই ছিল না, এখন প্রতিটি জেলায় একটি করে ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন করে দিয়েছে সরকার।’