১৮, জুন, ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

প্রস্তুতি ম্যাচে ব্যাটিংয়ে নেমে চরম বিপর্যয়ে ভারত

আপডেট: মে ২৫, ২০১৯

প্রস্তুতি ম্যাচে ব্যাটিংয়ে নেমে চরম বিপর্যয়ে ভারত

বিশ্বকাপের আগেই ভারতের ব্যাটিং দুর্বলতা ফুটে ওঠেছে। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের আনুষ্ঠানিক প্রস্তুতি জোরদারের ম্যাচে ব্যাটিংয়ে নেমে চরম বিপর্যয়ে পড়ে ভারত। নিউজিল্যান্ডের পেসার ট্রেন্ট বোল্টের গতিতে বিধ্বস্ত বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন দলটি। ৮১ রানে ৬ ব্যাটসম্যানের উইকেট হারিয়ে এক ঘরে হয়ে যায় ভারত। ১৯.৪ ওভারেই রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল, বিরাট কোহলি, হার্দিক পান্ডিয়া এবং দিনেশ কার্তিকের উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়ে ভারত।

স্কোর বোর্ডে মাত্র ২৪ রান যোগ করতেই তিন উইকেট হারায় ১৯৮৩ ও ২০১১ সালের বিশ্বকাপজয়ী দল ভারত। দলের ব্যাটিং ধসের দিনে বাড়তি দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে পারেননি অধিনায়ক কোহলি।

শনিবার ইংল্যান্ডের লন্ডন ওভালের কেনিংসটনে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ৫.৩ ওভারে ২৪ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বেকায়দায় পড়ে যায় ভারত। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই সাজঘরে ফেরেন ভারত সেরা ওপেনার রোহিত শর্মা। ওয়ানডে ক্রিকেটে তিনটি ডাবল সেঞ্চুরির ইতিহাস গড়া রোহিত ফেরেন মাত্র ২ রান করে। ট্রেন্ট বোল্টের গতির বলে বিভ্রান্ত হন তিনি।

রোহিত শর্মা আউট হওয়ার ঠিক পরের ওভারেই প্যাভেলিয়নে ফেরেন অন্য ওপেনার শিখর ধাওয়ান। ট্রেন্ট বোল্টের দ্বিতীয় শিকারে পরিনত হন তিনি।

চার নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে পরিস্থিতি বুঝে ওঠার আগেই ট্রেন্ট বোল্টের বলে স্ট্যাম্প ভেঙে যায় লোকেশ রাহুলের। আইপিএলে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে দুর্দান্ত ব্যাটিং করা রাহুল ফেরেন ১০ বলে মাত্র ৬ রান করে।

২৪ রানে প্রথম সারির ৩ উইকেট হারিয়ে এক ঘরে হয়ে যায়া ভারত। দলের ইনিংস মেরামত করার আগেই ফেরেন অধিনায়কও।

নিউজিল্যান্ডের পেসার কলিন ডি গ্রান্ডহোমের গতির বলে স্ট্যাম্প উড়ে যায় বর্তমান সময়ের সেরা ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলির। ভারতীয় অধিনায়ক বোল্ড হওয়ার আগে ২৪ বলে মাত্র ১০ রান করার সুযোগ পান তিনি।

৩৯ রানে ৪ ব্যাটসম্যানের বিদায়ের পর দলকে খেলায় ফেরানোর সর্বোচ্চ চেষ্টা করেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। পঞ্চম উইকেটে হার্দিক পান্ডিয়াকে সঙ্গে নিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়ার চেষ্টা করেন। এই জুটিতে ৩৮ রান করতেই বিপদে পড়েন পান্ডিয়া। ক্যাচ তুলে দিয়ে বিদায় নেয়ার আগে ৩৭ বলে ৩০ রান করেন এ অলরাউন্ডার।

পান্ডিয়ার বিদায়ের পর ব্যাটিংয়ে নেমে সুবিধা করতে পারেননি দিনেশ কার্তিক। আইপিএলের দল কলকাতা নাইট রাইডার্সের এ অধিনায়ক ফেরেন মাত্র ৪ রানে।

৩৯ রানে চার ব্যাটসম্যানের বিদায়ের পর খেই হারিয়ে ফেলে ভারত। নিয়মিত উইকেট হারানোর পর সেভাবে লড়াই করতে পারেনি বিরাট কোহলির দলটি।

ব্যাটিং বিপর্যয়ের দিনে প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। ওয়ানডে ম্যাচে টেস্টের আদলে ব্যাটিং করেন ভারতের বিশ্বকাপজয়ী দলের এ অধিনায়ক।

দলীয় ৯১ রানে থেমে যায় ধোনির একার লড়াই। জেমস নিশামের বলে শটমিড উইকেটে ক্যাচ তুলে দিয় সাজঘরে ফেরেন ধোনি। তার আগে ৪২ বল মোকাবেলা করে মাত্র ১৭ রান করার সুযোগ পান ভারত সেরা এ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান।