২৩, মে, ২০১৯, বৃহস্পতিবার | | ১৮ রমজান ১৪৪০

ফারিনের কারণে ভাঙল ইরফান-তিশার সংসার!

আপডেট: অক্টোবর ২২, ২০১৮

ফারিনের কারণে ভাঙল ইরফান-তিশার সংসার!

মিডিয়ায় প্রেম-বিচ্ছেদ ও সংসার ভাঙ্গন এমনকি এ নিয়ে লুকোচাপার ঘটনা নতুন নয়। বিষয়টি হতাশা, হতবাক কিংবা বিনোদন নিয়েই উপভোগ করতে হয় দর্শক-শুভাকাঙ্ক্ষীদের। কেননা, কখনো এই প্রেম-বিচ্ছেদ কিংবা বিয়ে গড়িয়ে সংসার ভাঙ্গনের রসায়ন দর্শক-ভক্তদের দেখতে হয় পর্দায় আবার কখনো দেখা মিলে প্রিয় তারকাদের বাস্তব জীবনেও।

খবর এসেছে, এরই মধ্যে ছোটপর্দার মডেল-অভিনেত্রী তাসনিয়া ফারিনের কারণে ভাঙল অপর অভিনয় শিল্পী ইরফান সাজ্জাদ ও তাসনুভা তিশার সংসার। এমন খবরে আপনি চমকে উঠলেও ঘটনাটি কিন্তু মোটেই বাস্তব নয়। তার মানে এমনটি ঘটেছে কোনো নাটকেই। সত্যি তাই।

সম্প্রতি নির্মিত হয়েছে প্রতিশ্রুতিশীল তরুণ নাট্যনির্মাতা অদিত্য জনি পরিচালিত নাটক ‘যাও পাখি বল’। দাম্পত্য জীবনে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার সূত্রপাতে গড়ে ওঠা এ নাটকটির গল্প ও চিত্রনাট্য লিখেছেন জহির করিম। ত্রিভুজ প্রেমের গল্পে আবৃত এই নাটকে অভিনয় করেছেন ইরফান সাজ্জাদ, তাসনুভা তিশা এবং তাসনিয়া ফারিন।

নাটকে তাসনুভা তিশা অভিনয় করছেন ঐশী চরিত্রে এবং তার বিপরীতে সাথিল চরিত্রে দেখা যাবে ইরফান সাজ্জাদকে। নাটকে তারা স্বামী-স্ত্রী। সুন্দর দাম্পত্য জীবনের একটা পর্যায়ে সাথিলের ক্লাসফ্রেন্ড সিমানা (ফারিন) বিপদে পড়ে তার বাসায় এসে ওঠে।

মূলত, ঢাকায় চিকিৎসা নিতে আসা ক্যান্সারে আক্রান্ত সিমানা তার অসুস্থতার বিষয়টি ঐশীকে না জানাতে অনুরোধ করে সাথিলকে। কারণ জীবনের শেষ মূহুর্তে সেভাবে কারো সিম্পেথি নিতে চায় না সিমানা। এভাবেই সময় যাচ্ছিল। কিন্তু সাথিল-সিমানার চলাফেরায় তাদেরকে সন্দেহ করে ঐশী। এক পর্যায়ে এ নিয়ে দুজনের মধ্যে সম্পর্কের টানাপোড়েন দেখা দেয় এবং সাথিলকে ছেড়ে চলে যায় ঐশী। ওইদিনই সিমানার মৃত্যু হয়। অতঃপর প্রায় ১৫ বছর পেরিয়ে সাথিলের সাথে দেখা হয় ঐশীর।

কিন্তু এতো দিনে কতো বদলে গেছে ঐশী। এরই মধ্যে সে সংসার বেঁধেছে অথচ, চরম একাকিত্বে দিন পার করছে সাথিল। পারস্পরিক জীবন নিয়ে তাদের কৌতূহলী জিজ্ঞাসার মধ্য দিয়ে দর্শকরা দেখতে পাবেন পুরো ঘটনার ইতিবৃত্ত। এমনি প্রাণস্পর্শী ঘটনাবহে নির্মিত হয়েছে নাটক ‘যাও পাখি বল’।

নাটকটিতে আরো অভিনয় করেছেন অভিনেতা রোমেল। শিগগিরই দেশের একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে নাটকটি প্রচার হবে বলে জানিয়েছেন পরিচালক অদিত্য জনি।