২৩, জুলাই, ২০১৯, মঙ্গলবার | | ২০ জ্বিলকদ ১৪৪০

বিসিবি কর্মকর্তার নির্দেশে সময় টিভির সাংবাদিককে হেনস্তা

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৯

বিসিবি কর্মকর্তার নির্দেশে সময় টিভির সাংবাদিককে হেনস্তা

ইমরুল কায়েসকে নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করায় মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে সময় সংবাদের প্রতিবেদককে হেনস্তা করেছেন নিরাপত্তা কর্মীরা। উপরের নির্দেশে স্টেডিয়ামে ঢুকতে বাধা দিয়েছেন বলেও জানান তারা। সময় টিভির প্রতিবেদককে এক ঘণ্টা বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়। এ সময় নিরাপত্তা কর্মীরা তার সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন।

পরে বিসিবি’র মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুসের হস্তক্ষেপে প্রতিবেদক স্টেডিয়ামে ঢোকেন। তবে কার নির্দেশে এমনটা করা হয়েছে সেটা বলেননি নিরাপত্তা কর্মীরা।

ইমরুল কায়েসের দলে অন্তর্ভুক্তি নিয়ে বৃহস্পতিবার (৩১ জানুয়ারি) প্রতিবেদন প্রকাশ করে সময় সংবাদ। তাতে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন স্পষ্ট করে সময় টিভির প্রতিবেদককে জানান, ইমরুলকে দলে নিয়েছেন তারা। এই সংবাদ নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো প্রতিবাদ করেনি বিসিবি।

শুক্রবার (০১ ফেব্রুয়ারি) বিপিএলের সংবাদ সংগ্রহের জন্য শের-ই বাংলা স্টেডিয়ামে ঢুকতে গেলে সময় সংবাদের প্রতিবেদককে বাধা দেন নিরাপত্তা কর্মীরা। এর কারণ জানতে চাইলে একজন নিরাপত্তা কর্মী জানান, উপরের নির্দেশে তিনি বাধা দিচ্ছেন।

মুক্তার নামে ওই নিরাপত্তারক্ষী বলেন, ‘আমি জানি না, বলেছে অনুমতি নাই।’ কে বাধা দিতে বলেছেন, সেটি জানতে চাইলে উত্তেজিত হয়ে ওই নিরাপত্তারক্ষী বলেন, ‘আপনি ফোন দেন।’

প্রায় এক ঘণ্টা সেখানে দাঁড়িয়ে থাকার পর ভেতরে ঢোকার অনুমতি মেলে। ভেতরে ঢোকার পর আবারো বাধা দেন কয়েকজন নিরাপত্তাকর্মী। কিছুতেই ঢুকতে দেবেন না তারা। পরে অন্য সংবাদমাধ্যম কর্মীরা মোবাইল ফোনে কথা বলেন বিসিবি মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুসের সঙ্গে। জানতে পারেন, ইমরুল কায়েসকে নিয়ে সংবাদ প্রচার করায় এমনটা করেছে বিসিবি। তবে কোন কর্মকর্তার নির্দেশে বাধা দেয়া হয়েছে সেটি জালাল ইউনুস বলেননি। পরে অবশ্য সংবাদ সংগ্রহের জন্য ঢুকতে দেয়া হয় সময় টিভির প্রতিবেদককে।

অবশ্য এটাই প্রথম না। সঠিক খবর প্রচার করায় বিভিন্ন সময় সাংবাদিকদের বিসিবি পরিচালকদের নির্দেশে স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। দেশের ক্রিকেট বিকাশে ভূমিকা রাখা সংবাদমাধ্যমকে এইভাবে সংবাদ সংগ্রহে বাধা দেয়া নিশ্চয়ই কারো কাম্য নয়।