২৬, জুন, ২০১৯, বুধবার | | ২২ শাওয়াল ১৪৪০

রেস্টুরেন্ট ব্যবসায় সফল হওয়ার কিছু টিপস!

আপডেট: এপ্রিল ২৮, ২০১৯

রেস্টুরেন্ট ব্যবসায় সফল হওয়ার কিছু টিপস!

রেস্টুরেন্ট ব্যবসা বর্তমানে একটি জনপ্রিয় ব্যবসা হিসাবে পরিচিত। যদি এই ব্যবসাটি সঠিক ভাবে নিষ্ঠার সাথে করা যায় তাহলে এই ব্যবসার মাধ্যমে ভাল লাভবান হওয়া সম্ভব। রেস্টুরেন্টের ব্যবসায় সফল হওয়াটা খুব বেশি সহজ নয়। এ ব্যবসায় অনেক চ্যালেঞ্জ নিয়ে কাজ করতে হয়। কারন রেস্টুরেন্টের ব্যবসা অনেক ধরনের বাধ্যবাধকতা থেকে থাকে। তাছাড়া চ্যালেঞ্জের পাশাপাশি কঠোর পরিশ্রম করতে হয় এবং খ্যাতি অর্জন করা অনেক সময়ের ব্যাপার। নিচে রেস্টুরেন্টের ব্যবসায় সফল হওয়ার কিছু উপায় সম্পর্কে আলোচনা করা হল।

অসাধারণ পরিবেশ ও সুস্বাদু মেন্যু: রেস্টুরেন্ট ব্যবসা শুরু করার সময় অবশ্যই লক্ষ্য রাখতে হবে যে রেস্টুরেন্টটি সাজাতে যেন খুব বেশি অর্থ ব্যয় না হয়। সাধারনত রেস্টুরেন্টের ব্যবসায় খাবার যদি সুস্বাদু হয় তাহলে সকলের কাছে রেস্টুরেন্টের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পায়। তবে খাবারের পাশাপাশি রেস্টুরেন্ট টি যদি জাঁকজমক ভাবে সাজানো হয় তাহলে যারা রেস্টুরেন্টে আসে তারা আকৃষ্ট হবে।

কিন্তু অবশ্যই লক্ষ্য রাখতে রাখতে হবে যে খাবার যাতে সুস্বাদু হয় এবং খাবারের মেন্যুতে যেন মুখরোচক খাবার থাকে। তাহলে গ্রাহকরা আপনার রেস্টুরেন্টে ভিড় জমাবে এবং খাবারের প্রতি আকৃষ্ট হবে। এতে একটি নির্দিষ্ট গ্রাহক শ্রেণী তৈরি হতে পারে যা রেস্টুরেন্ট ব্যবসা করে সফল হতে সাহায্য করবে।

সুন্দর ডিজাইনে আসন বিন্যাস: রেস্টুরেন্টে দিনে কতজন খেতে আসল তার উপর রেস্টুরেন্টের আয় নির্ভর করে। যারা রেস্টুরেন্টে নিয়মিত আসে তারা সবসময় চায় যে একটি নির্দিষ্ট স্থানে বসে খাবার খেতে। আবার অনেক সময় অনেকে ফ্যামিলির সাথে রেস্টুরেন্টে খেতে যায়। অনেক সময় তারা রেস্টুরেন্টে অগ্রিম সিট বুকিং করে থাকে।

এই ক্ষেত্রে তারা যেই নির্দিষ্ট স্থানটি বুকিং দিয়েছেন সেখানেই খেতে চায়। রেস্টুরেন্ট ব্যবসার সফলতার জন্য ক্যাফেটেরিয়া প্রকৃতির আসন বিন্যাস প্রয়োজন এমন নয়। তবে একটি স্মার্ট, মার্জিত ও বিস্তৃত সুন্দর ডিজাইনে আসন বিন্যাস অপরিহার্য।

স্টাফদের সহযোগিতা মুলক মনোভাব থাকতে হবে: রেস্টুরেন্টে যে স্টাফরা কর্মরত থাকে তাদের সহযোগিতামূলক মনোভাব থাকতে হবে। কারন যে কেউ রেস্টুরেন্টে যেয়ে রেস্টুরেন্টের নিয়ম কানুন গুলো না জানতে পারেন সে ক্ষেত্রে রেস্টুরেন্টের স্টাফদের যদি সহযোগিতা মুলক মনোভাব থাকে তাহলে গ্রাহকরা খুশি হবে।

পার্কিং এর ব্যবস্থা করতে হবে: গ্রাহকরা যদি গাড়ি নিয়ে রেস্টুরেন্টে আসে তাহলে তাদের গাড়ি পার্কিং করার ব্যবস্থা থাকতে হবে। তাহলে গ্রাহকরা খুব সহজেই যে স্থানে খেতে যাচ্ছে সেই স্থানেই পার্কিং সুবিধা পাবে। রেস্টুরেন্টের তত্ত্বাবধানে পার্কিং ব্যবস্থা গ্রাহকদের আকৃষ্ট করে থাকে। এই ভাবে রেস্টুরেন্টে বিক্রি বেড়ে যাবে।

খোলা স্থান থাকতে হবে: রেস্টুরেন্টের স্থান নির্বাচনের সময় যাতে কিছু খোলা স্থান থাকে সে দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। যদি রেস্টুরেন্টে খোলা স্থান থাকে তাহলে সে স্থানে অনেক সময় পার্টির ব্যবস্থা করা সম্ভব হয়। আর যদি রেস্টুরেন্টে পার্টি আয়োজনের সুবিধা থাকে তাহলে অনেক বেশি অর্থ উপার্জন সম্ভব হয়। তাই যখন রেস্টুরেন্ট ব্যবসা শুরু করবেন, বড় করেই করা ভাল। এতে লাভের পরিমাণ বেশী হবে।

অনলাইন রিভিউ: রেস্টুরেন্ট ব্যবসায় এখন সব থেকে বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে ভাল অনলাইন রিভিউ। আজকাল যখন কেউ কোন রেস্টুরেন্টে খাবার খেতে যান তার আগে ওই রেস্টুরেন্টের রিভিউ দেখে নেয়। ভাল রিভিউ থাকলে আপনার বিক্রি প্রায় ৪০ ভাগ বেড়ে যাওয়ার সম্ভবনা আছে।

স্বাস্থ্যসম্মত খাবার সরবরাহ: রেস্টুরেন্টে যে খাবার গুলো সরবরাহ করা হয় তা যেন স্বাস্থ্যসম্মত হয় সে দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। কারন খাবার ভালো না হলে খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে যাবার সম্ভাবনা থাকে। এতে করে গ্রাহকদের নেতিবাচক ধারণা তৈরি হবে এবং তারা আর কখনও আপনার রেস্টুরেন্টে আসবে না।

স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশ: রেস্টুরেন্টে খাবার তৈরির পরিবেশ অবশ্যই স্বাস্থ্যসম্মত হতে হবে। কারন খাবার তৈরির আশপাশের পরিবেশ যদি ভালো না থাকে, অস্বাস্থ্যকর হয়ে থাকে ভালো খাবার তৈরি সম্ভব নয়। তাই আশপাশের পরিবেশ যাতে ভালো ভালো হয় সেটি লক্ষ্য রাখতে হবে।