১৮, জুন, ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

“সাশ্রয়ি মূল্যে এলপিজি সরবরাহের উদ্যোগ অব্যাহত রাখা হয়েছে” – বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

আপডেট: জুন ১০, ২০১৯

“সাশ্রয়ি মূল্যে এলপিজি সরবরাহের উদ্যোগ অব্যাহত রাখা হয়েছে” – বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, সাশ্রয়ি মূল্যে এলপিজি সরবরাহের উদ্যোগ অব্যাহত রাখা হয়েছে। মাতারবাড়ি‘র এনার্জি হাবে এলপিজি টার্মিনাল ও কোল টার্মিনাল করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। অতিসম্প্রতি জাপান সফরের অভিজ্ঞতা থেকে বলেন, জাপান বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সংক্রান্ত অবকাঠামো নির্মাণে ও ল্যান্ড বেইজড্ এলএনজি টার্মিনাল নির্মাণে সহযোগিতা করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী আজ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের ব্রিফিং কালে এসব কথা বলেন।  ‌এ সময় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের সার্বিক অবস্থা গণমাধ্যমকে অবহিতকালে তিনি বলেন, বিদ্যুতের অবস্থা তূলনামূলকভাবে ভালো; নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ পেতে আরো কিছু সময় লাগবে। চীন সরকারের সাথে জি-টু-জি তে বিতরণ ব্যবস্থার আধুনিকায়নে পিছিয়ে যাওয়ায় সার্বিক উন্নয়ন একটু পিছিয়ে গেলেও জনগণকে সর্বোত্তোম সেবা দিতে সরকার সর্বদা প্রস্তুত রয়েছে।

গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিইআরসি গ্যাসের মূল্য সমন্বয় করতে পারে; বিষয়টি বার্কে‘র উপর রয়েছে। গ্যাসে সরকার ভর্তুকী দিচ্ছে।  এলএনজি আমদানিকে হিসেবে রেখে গ্যাস উৎপাদন খরচ প্রতি কিউবিক মিটার ১৪ টাকা কিন্তু গড়ে প্রতি কিউবিক মিটার বিক্রয় করা হচ্ছে ৭.১৭ টাকায়। আবাসিক গ্যাস সংযোগ নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে।

কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, পায়রা প্রথম ইউনিট অক্টোবর ২০১৯ থেকে উৎপাদনে আসবে। মেগা প্রকল্পগুলো ধীরে ধীরে বাস্তবায়নের পথে এবং জনগণকে স্বস্তি দিতে আমরা আন্তরিকভাবে কাজ করছি।

এ সময় অন্যান্যের মাঝে পাওয়ার সেলের ডিজি মোহাম্মদ হোসাইন ও পিডিবি‘র চেয়ারম্যান প্রকৌশলী খালেদ মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন।