২৩, জুলাই, ২০১৯, মঙ্গলবার | | ২০ জ্বিলকদ ১৪৪০

রেজিস্ট্রেশন চায় ৮ হাজার অনলাইন গণমাধ্যম!

বিদ্যমান অনলাইন গণমাধ্যম রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আনার সিদ্ধান্ত নেওয়া পর এপর্যন্ত আট হাজারেরও বেশি আবেদন জমা পড়েছে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। একইসঙ্গে তিনি বলেন, এই সকল অনলাইন গণমাধ্যম রেজিস্ট্রেশন হয়ে গেলে। এই সেকশনে শৃঙ্খালা ফিরে আসবে। আজ সোমবার (১৫ জুলাই) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সভাকক্ষে জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের চতুর্থ কার্য অধিবেশন শেষে তিনি কথা বলেন। রেজিস্ট্রেশনে কত সময়ে লাগতে এমন প্রশ্নের জাববে তথ্যমন্ত্রী বলেন, আবেদন যেহেতু অনেক একটু সময় লাগবে। যেসব অনলাইন গণমাধ্যম নিয়ম অনুযায়ী দায়িত্ব পালন করে তাদের রেজিস্ট্রেশন তাড়াতাড়ি হয়ে যাবে। আর যেগুলো নিয়ে সন্দেহ রয়েছে, সেগুলো যাচাই-বাছাই করতে একটু সময় লাগবে।’ হাছান মাহমুদ বলেন, ‘সোশ্যাল মিডিয়া শুধু বাংলাদেশে নয়, সব দেশের জন্য চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করেই আমরা এগিয়ে যাবো। দেশে এখন চতুর্থ বিপ্লব চলছে। এই চতুর্থ বিপ্লবই হচ্ছে আইসিটি যুগ। এগুলোকে সমন্বিত করেই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হবে।’ হাছান মাহমুদ আরও বলেন, ‘আপাতত দেশের ২৭ জেলায় তথ্য কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হবে। বাকি জেলাগুলোতেও নির্মিত হবে, এজন্য স্থান নির্বাচন করতে ডিসিদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সেসব কমপ্লেক্সে অত্যাধুনিক ব্যবস্থাসহ সিনেমা প্রদর্শনের ব্যবস্থা থাকবে।’ তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সর্বস্তরের মানুষের ডিজিটাল সিকিউরিটি নিশ্চিত করতে আইসিটি অ্যাক্ট করা হয়েছে। এর যেন অপব্যবহার না হয়, সে বিষয়ে সরকারের সদয় দৃষ্টি রয়েছে এবং এ বিষয়ে ডিসিদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’