৬ই এপ্রিল, ২০২০ ইং, সোমবার
১৩ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী

‘দেশপ্রেম’, ‘পাকপ্রেম’ এবং ‘ভারত বিরোধিতা’

প্রকাশিত: ১২:২৬ অপরাহ্ণ , ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯

‘দেশপ্রেম’, ‘পাকপ্রেম’ এবং ‘ভারত বিরোধিতা’

সিএনআই ডেস্ক: একাত্তরে বাংলার মানুষ যখন দেশমাতৃকার স্বাধীনতা আর সম্মানের জন্য লড়ছিল, তখন তাদেরকে ‘ভারতের চর’ বলে আখ্যায়িত করতো পাকিস্তানি হত্যাকারী আর তাদের এদেশীয় দোসর রাজাকারের দল। এত বছর পরেও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষশক্তিকে আক্রমণ করার জন্য তারা একই ভাষা, একই শব্দ ব্যবহার করে।

শেরে বাংলা ফজলুল হক, সোহরাওয়ার্দী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তারা সবাই পাকিস্তানিদের দ্বারা ভারতীয় দালাল হিসেবে ইতিহাসের বিভিন্ন সময় আখ্যায়িত হয়েছিলেন। পাকিস্তানিদের চোখে সকল মুক্তিকামী, দেশপ্রেমী মুক্তিযোদ্ধারা ভারতীয় চর ছিল। আজকের প্রেক্ষাপটও সত্যিকার অর্থে বাংলাদেশপ্রেমী, ‘জয় বাংলা’র অনুসারীরা পাকিস্তানিদের রেখে যাওয়া প্রেতাত্মাদের কাছে ভারতীয় দালাল। তাই, আমি মনে করি, ভবিষ্যত প্রজন্মের কাছে সত্য তথ্য তুলে ধরার মাধ্যমে আটকে পরা পাকি প্রেতাত্মাদের মিথ্যাচারের জবাব দেয়া দেশপ্রেমের অংশ।

আমরা পাকিস্তানের বিরোধিতা করি কারণ আমরা দেশপ্রমী, যারা ভারত বিরোধিতা করে তাদের অনেকেই পাকপ্রেমী। দেশপ্রেম থেকে ভারত বিরোধিতা করলে অসুবিধা নাই, কিন্তু পাকপ্রেম থেকে বিরোধিতা করলে সেই রাজাকারের বংশধররা দেশপ্রেমী হয়ে যাবে না। কারণ পাকপ্রেমীরা ৭১ এ বাংলাদেশের বিরোধিতাও করেছিল।

-মোহাম্মদ এ. আরাফাত


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।