২রা এপ্রিল, ২০২০ ইং, বৃহস্পতিবার
৯ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতির পরও ব্যর্থ মন্ত্রী থাকেন কীভাবে?

প্রকাশিত: ৬:২৩ অপরাহ্ণ , ডিসেম্বর ১৮, ২০১৯

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতির পরও ব্যর্থ মন্ত্রী থাকেন কীভাবে?

সিএনআই ডেস্ক: ভারতে দ্বিতীয় দফা বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে মসনদে বসা বিজেপি নেতৃত্ব ক্ষমতার গরম সইতে পারেনি। আর তাই সকল দল ও মানুষের আবেগ অনুভূতির তোয়াক্কা না করেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল সংখ্যাগরিষ্ঠতার জোরে পাশ করেছে।এ তে ভোটে পরাজিত নিস্প্রভ সকল দল ও মানুষকে শক্তিশালী আন্দোলনে, ছাত্র বিক্ষোভসহ অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি সৃস্টির সুযোগ করে দিয়েছে। এর পরিণতি কী হবে জানি না, তবে গান্ধী পরিবারের নেতৃত্বসহ কংগ্রেস থেকে বিরোধী দলগুলো যেভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে তাতে ভবিষ্যৎ নির্বাচন শাসকদলের নিশ্চিত ভরাডুবি নিয়ে আসতে পারে।

বাংলাদেশে শাসকদল আওয়ামী লীগ মহান মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দিলেও টানা ১১ বছরের ক্ষমতায় এমন এক মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রী বানিয়েছে যিনি বহুল আলোচিত রাজাকারের তালিকা প্রকাশে নজিরবিহীন বিতর্ক ও স্তম্ভিত করা ইতিহাস বিকৃতি ঘটিয়েছেন। যে সরকার বা দল অতীতের শাসকদের বিরুদ্ধে ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগ এনেছে বারবার, সেই দলীয় সরকারের মন্ত্রীর প্রকাশিত তালিকায় প্রকৃত শান্তি কমিটির অনেক সদস্য, রাজাকার, আলবদর, আলশামসসহ তাদের কর্মকাণ্ডের চিত্র দিতে ব্যর্থ হয়েছে। অন্যদিকে মুক্তিযুদ্ধের জাতীয় বীরদের, শহীদদের এমনকি প্রয়াত বীর ও সংগঠকদের তালিকায় নাম দিয়ে জাতির সঙ্গে চরম বিশ্বাসঘাতকতা করেছে। এটা রাজাকার রক্ষার ষড়যন্ত্র নাকি সরকারবিরোধী গভীর চক্রান্তের অংশ? নাকি যুদ্ধাপরাধীদের বিচার প্রশ্নবিদ্ধ করার বিতর্কের নতুন মডেল? এমন ব্যর্থ মন্ত্রী এমন বড় অপরাধের পরে মন্ত্রী থাকেন কীভাবে? স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও বলেছে, যাচাই-বাছাই ছাড়া তালিকা প্রকাশ ঠিক হয়নি। এমন অপরাধের জন্যও কি মন্ত্রীসহ কারও বিরুদ্বে ব্যবস্থাগ্রহণ হবে না? কেনো হবে না!

পরিচিতি: পীর হাবিবুর রহমান নির্বাহী সম্পাদক, বাংলাদেশ প্রতিদিন।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।