২৬শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং, রবিবার
৩০শে জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

শ্যূন্যেয়া প্রযোজিত সায়েন্স ফিকশন নাটক “মানুষ” দিয়ে যাত্রা শুরু

প্রকাশিত: ১০:০৬ পূর্বাহ্ণ , জানুয়ারি ৪, ২০২০

শ্যূন্যেয়া প্রযোজিত সায়েন্স ফিকশন নাটক “মানুষ” দিয়ে যাত্রা শুরু

সিরাজুল ইসলাম (রাজ): আজ শনিবার (৪ জানুয়ারি) বাংলাদেশ মহিলা সমিতি, নিলীমা ইব্রাহিম মিলনায়তনে (বেইলি রোড, ঢাকা) সায়েন্স ফিকশন নাটক “মানুষ” মঞ্চায়নের মাধ্যমে ঢাকার নাটক পাড়ায় নতুন নাটকের দল হিসেবে শ্যূন্যেয়া যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে।

স্থানঃ নিলীমা ইব্রাহিম মিলনায়তন,বাংলাদেশ মহিলা সমিতি(বেইলি রোড,ঢাকা), সময়ঃ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান-সন্ধ্যা ৬টা ৩০ মিনিট, নাটকের প্রদর্শনী- সন্ধ্যা ৭ টা, রচনাঃ জাভেদ মাহমুদ, নির্দেশনাঃ নাজমুল হোসেন।

গল্প সংক্ষেপ-

গল্পটি মানব সভ্যতার শুরু থেকে বর্তমান হয়ে সুদূর ভবিষ্যৎ পর্যন্ত বিস্তার লাভ করেছে। বিজ্ঞানের যে যাত্রা তা বর্তমান থেকে বহু আগেই পৃথিবীতে ঘটেছিল এবং মানুষ তার নিজের সুবিধার জন্যই অনেক আবিষ্কার ও উদ্ভাবন করেছে। কিন্তু জীবনকে সহজ করার এই প্রচেষ্টা সুবিধার সাথে সাথে হিতে বিপরীতও ডেকে নিয়ে এসেছে। মানুষ বন্দি হয়েছে প্রযুক্তির ফাঁদে!

মানুষ নাটকে দেখানো হয়েছে,মানবসৃষ্ট যন্ত্র রোবটে মানুষ নিজেই বন্দী হয়ে পড়বে আর মানুষের তৈরী যন্ত্র এই রোবটই মানুষের যাবতীয় কার্য সম্পাদন করবে। গল্পে দেখা যায়, ষষ্ঠ প্রজাতির একটি রোবট- হিউমো এন্ড্রোয়েড ৭০৫ কে ধ্বংস করার দায়িত্ব দেয়া হয় কর্পোরেশনের চৌকষ কর্মকর্তা “অ্যালেন”কে,যে হিউমোএন্ড্রোয়েড নিজেকে মানুষ হিসেবে দাবি করেছে এবং স্বাধীন হতে চেয়েছে।

মানুষ ভাল-মন্দ উভয় গুনসমৃদ্ধ। আর ষষ্ঠ প্রজাতির রোবটটি ছিল কেবল মাত্র মানবীয় ভাল গুন দিয়ে তৈরী। কিন্তু রোবটটিকে মানুষের মঙ্গল সাধনের জন্য তৈরী করা হয়। সময়ের পরিক্রমায় রোবটে যখন মানবীয় ভালমন্দ উভয় গুনাবলী সংযুক্ত হবে আর তখন ই শুরু হবে মানুষের বিপন্ন হবার গল্প।

নাটকে দেখা যাবে অনেক যুক্তিতর্ক শেষে ষষ্ঠ প্রজাতির হিউমো এন্ড্রোয়েটকে ধ্বংস করতে গেলেই সামনে দাঁড়াবে নতুন আরেক সংকট। মুখোমুখি হবে স্রষ্টা ও সৃষ্টি । উন্মোচিত হবে আরেক সত্য!

এই গল্প বুননের মাঝে উঠে এসেছে সমাজ বাস্তবতা-রাজনীতি-উন্নয়ন-ধর্ম-ঈশ্বর-বিশ্বাস সহ মানবজীবনের সার্বিক দিক।

কুশীলব- রেফাত হাসান সৈকত, তানজিদা শহীদ মৌ, অনন্যা নিশি, মাজেদ আহমেদ, হোসাইন জীবন, রায়হান আহমেদ, নাজমুল হোসেন সহ আরো অনেকে।

আলো প্রক্ষেপন- হোসাইন জীবন, আবহ সঙ্গীত- সালেহীন শুভ, প্রোডাকশ ম্যানেজার- রেফাত হাসান সৈকত, সহ প্রোডাকশন ম্যানেজার- তানজিদা শহীদ মৌ এবং মাজেদ আহমেদ।

সিএনআই/এসআই


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।