শুক্রবার, ২৯শে মে, ২০২০ ইং

আদালতে তোলা হচ্ছে মজনুকে, ১০ দিনের রিমান্ড চাইবে পুলিশ

প্রকাশিত: ১:২৪ অপরাহ্ণ , জানুয়ারি ৯, ২০২০

আদালতে তোলা হচ্ছে মজনুকে, ১০ দিনের রিমান্ড চাইবে পুলিশ

সিএনআই ডেস্ক: রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার ধর্ষক মজনুকে আদালতে নেয়া হচ্ছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে আদালতে হাজির করে পুলিশ ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করতে পারে বলে জানা গেছে।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) উত্তর বিভাগের উপকমিশনার মশিউর রহমান গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

গত রোববার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ক্লাস শেষে ক্যাম্পাস থেকে রাজদধানীর শেওড়ায় বান্ধবীর বাসায় যাওয়ার পথে কুর্মিটোলায় ওই ঢাবি শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করা হয়। এ ঘটনায় রোববার রাত থেকেই ঢাবি ক্যাম্পাস বিক্ষোভ, মিছিল আর প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠে।

ধর্ষণের শিকার ছাত্রীর মোবাইলের সূত্র ধরে মঙ্গলবার ভোরে রাজধানীর শেওড়া রেলক্রসিং এলাকা থেকে মজনুকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ সময় তার কাছ থেকে ওই ছাত্রীর ব্যাগ ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

বুধবার গণমাধ্যমকে বিষয়টি জানানোর পর দুপুরেই সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত তুলে ধরে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন র‌্যাব।

র‌্যাব জানায়, গ্রেফতার ধর্ষক মজনু প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঢাবি শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। মজনু সিরিয়াল রেপিস্ট। এর আগে সে ভিক্ষুক ও প্রতিবন্ধী নারীদের ধর্ষণ করেছে। মজনু একই স্থানে অনেককে ধর্ষণ করেছে বলেও প্রাথমিক স্বীকারোক্তিতে জানিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলন থেকে জানানো হয়, মজনু মাদকাসক্ত। পেশায় সে নিজেকে দিনমজুর বলে দাবি করলেও ছিনতাই, রাহাজানি ও চুরির মতো অপরাধ কর্মকাণ্ডে সে জড়িত। মজনু বিবাহিত, তার স্ত্রী মারা গেছেন। ১০ বছর আগে জীবিকার সন্ধানে ঢাকায় আসে সে। স্ত্রীর মৃত্যুর পর থেকে বিভিন্ন ধরনের অপকর্মে জড়িয়ে যায় মজনু।

এছাড়াও ভিক্ষুক ও প্রতিবন্ধী নারীরা শারীরিকভাবে তুলনামূলক কম শক্তিশালী হওয়ায় ধর্ষক মজনুর হাত থেকে কেউ রেহায় পায়নি। বিভিন্ন নির্জন এলাকায় নিয়ে তাদের ধর্ষণ করতো সে।

ধর্ষক মজনুর সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসির দাবিতে আজও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।