২৩শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং, বৃহস্পতিবার
২৭শে জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

প্রেমপত্রই ফেসবুক-ইনস্টাগ্রামের বেশি চেয়ে কার্যকরী!

প্রকাশিত: ৫:৪৭ অপরাহ্ণ , জানুয়ারি ১৩, ২০২০

প্রেমপত্রই ফেসবুক-ইনস্টাগ্রামের বেশি চেয়ে কার্যকরী!

সিএনআই ডেস্কঃ বর্তমান সময়ে আমাদের অনুভূতি প্রকাশ করার জন্য আমাদের কাছে অনেকগুলো প্ল্যাটফর্ম রয়েছে, তবুও আমরা নির্দ্বিধায় প্রকাশ করা থেকে নিজেকে আটকে রাখি। কথা বলার জন্য আমরা একই পুরানো ওয়ান-লাইনার মেসেজ বা ইমোজিগুলোর ওপর নির্ভর করি। একটি প্রেমের চিঠি লেখার জন্য সাবধানতার সাথে কাগজ নির্বাচন করা, মনের কথাগুলো লেখার জন্য একটি বিশেষ কালি বেছে নেয়া, প্রেমিক-প্রেমিকারা একটি প্রেমের চিঠি লিখতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ব্যয় করতো। দুঃখের বিষয়, বর্তমান প্রজন্মের বেশিরভাগই তাদের সঙ্গীর জন্য কখনোই কোনো চিঠি লেখে না। আশ্চর্যের বিষয় হলো, বেশিরভাগ সময়েই প্রেমের চিঠির শক্তিকে ক্ষুদ্র করে দেখা হয় এবং চিটচিটে হওয়ার জন্য এড়িয়ে যায়। প্রিয়জনদের কাছে প্রেমের চিঠি কেন লিখবেন, জেনে নিন-

শক্তিশালী: আপনার লেখা প্রেমপত্রগুলো কেবল কাগজের টুকরোই নয়, বরং এগুলো আপনার সঙ্গীর মধ্যে দৃঢ় অনুভূতি জাগ্রত করার ক্ষমতা রাখে। যখন আপনার অনুভূতিগুলো কাগজের উপর ছড়িয়ে পড়ে, আপনি নিজের দুর্বলতাগুলো তার কাছে নির্দ্বিধায় তুলে ধরেন, তখন অন্য কোনোকিছুই আপনার সঙ্গীকে এর চেয়ে বেশি খুশি করতে পারে না।

স্থায়ী: আপনার ফোনের মাধ্যমে পাঠানো ভার্চুয়াল মেসেজগুলোর তুলনায় চিঠির অক্ষরগুলো স্থায়ী। অস্থায়ী হওয়ায় আপনি মেসেজগুলো ধরে রাখতে পারবেন না। মেসেজগুলো দেখতে পাবেন ঠিকই তবে সেগুলো আপনার হাতে থাকা চিঠির মতো অনুভব করতে পারবেন না। চিঠিগুলো সহজেই সংরক্ষণ করা যায়, যখনই একলা লাগবে বা পুরনো স্মৃতিগুলো ঘেঁটে দেখতে মন চাইবে, তখন আপনি সেগুলো আবার পড়তে পারবেন।

মূল্যবান এবং ব্যক্তিগত: চিঠিতে সবার ওপরে নিজের নামটি দেখতে পাওয়ার মধ্যে এক ধরনের ভালোলাগা রয়েছে। এটি একান্তই ব্যক্তিগত একটি সম্পদ যা আপনাকে এবং কেবল আপনাকেই দেয়া হয়েছে। আপনার হাতের চিঠিটি, যা আপনার প্রিয় মানুষটি দীর্ঘ সময় ধরে চিন্তা করার পরে লিখেছেন। আর এই বিষয়গুলোই চিঠিকে আরও বেশি মূল্যবান করে তোলে।

সবাইকে সুখী করে: প্রেমের চিঠিতে আপনি এমনকিছু লেখেন যা প্রাপকের প্রতি আপনার অনুভূতিগুলো প্রকাশে সাহায্য করে। এই অনুভূতিগুলো আপনাকে সুখী, অনুপ্রাণিত এবং জীবন্ত করে তোলে। যখন আপনার সঙ্গী আপনার লেখা চিঠিটি পাবেন, তখন অবশ্যই বিস্মিত এবং চমকিত হবেন। আর এমনকিছু করতে পেরে আপনি নিশ্চয়ই নিজেকে আরও বেশি সুখী অনুভব করবেন।

নিজেকে প্রকাশের সেরা মাধ্যম: অনেক সময় প্রিয়জনকে মনের কথাটি জানানোর সঠিক উপায় খুঁজতে রীতিমতো যুদ্ধে নামতে হয়! কিন্তু একটি চিঠি লিখেই এই সমস্যার সমাধান মিলতে পারে আর তাতে সম্পর্ক আরও গভীর হয়। আপনি যেকোনো সময় মন খুলে সবকিছু লিখতে পারেন। প্রিয় মানুষটিও আপনার আবেগগুলো পড়তে এবং আরও অনেক বেশি অনুভব করতে পারে।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।