২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং, শনিবার
২৭শে জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

মাঘের শীতে কাবু উত্তরের তেঁতুলিয়া

প্রকাশিত: ৫:৫৯ অপরাহ্ণ , জানুয়ারি ২০, ২০২০

মাঘের শীতে কাবু উত্তরের তেঁতুলিয়া

তেঁতুলিয়া (পঞ্চগড়) প্রতিনিধিঃ  কথায় আছে মাঘের শীতে বাঘ পালায়। সেই মাঘ মাসের শীতে জর্জরিত দেশের সীমান্তবর্তী উপজেলা তেঁতুলিয়া। জেঁকে বসেছে মাঘের হাঁড়কাপানো শীত। দুদিন ধরে জুড়ে বইছে শৈত্যপ্রবাহ। কুয়াশা ও ঘন মেঘের কারণে হিমেল হাওয়ার সাথে পড়ছে শিশির বৃষ্টি। রবিবার হতে দেখা মিলছে না সূর্যের মুখ।
রবিবার সন্ধ্যায় গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টির সাথে হয়েছে বজ্রপাত। রাত ৯টায় ১ দশমিক ৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে আবহাওয়া অফিস। সোমবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা অনুভূত হয়েছে তেঁতুলিয়ায়। সকালে দেশের সর্বনিম্ন ছিল ১০ দশমিক ৪ ডিগ্রি ও বিকেল তিনটায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১৪ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মাঘের শীত আর মৃদু শৈত্য প্রবাহে সাধারণ মানুষেরা পড়েছে চরম ভোগান্তিতে। জরুরী কাজ ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছে না অনেকেই।

সরেজমিনে দেখা গেছে, রবিবার থেকে বইছে মৃদু শৈত্য প্রবাহ। গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিও পড়ছে। এক দিকে শৈত্যপ্রবাহ, অন্যদিকে মাঘ মাসে শীতের দাপটে জুবুথুবু সাধারণ ও খেটে খাওয়া মানুষেরা। শীত ও কুয়াশার কারনে সময় তো কাজে যেতে পারছে না অনেকেই। অনেকেই শীত নিবারনের শীতবস্ত্র না থাকায় খড়খুটো জ্বালিয়ে উষ্ণতা নেয়ার চেষ্টা করছে। সোমবার দিনভর উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে ফুটপাতের দোকানগুলোতে শীতের কাপড় নিতে বিভিন্ন শ্রেণির মানুষের ভীড় লক্ষ্য করা যায়। সাধ্যের মধ্যে কিনে নিচ্ছে শীত নিবারনে গরম কাপড়। এদিকে শীতের তীব্রতার কারণে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ কমিউনিটি হাসপাতালে শীতজনিত রোগীর উপস্থিতির ভিড় দেখা গেছে। শীতজনিত রোগে বেশী আক্রান্ত হচ্ছে শিশু ও বয়স্করা। তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রহিদুল ইসলাম জানান ৩৯;আজ সোমবার সকাল ৯টায় তেঁতুলিয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১০.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতকাল রোববার রাতে সামান্য বৃষ্টি হয়েছে। রাত ৯টায় ১ দশমিক ৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। শৈত্যপ্রবাহের কারণে শীতের তীব্রতা বাড়তে পারে বলে জানান।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।