৩০শে মার্চ, ২০২০ ইং, সোমবার
৬ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী

৩৬তম বিসিএসের ৩৮ জনকে নিয়োগের নির্দেশ হাই কোর্টের

প্রকাশিত: ৬:৪৫ অপরাহ্ণ , ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২০

৩৬তম বিসিএসের ৩৮ জনকে নিয়োগের নির্দেশ হাই কোর্টের

সিএনআই ডেস্ক: ছত্রিশতম বিসিএসের নিয়োগ বঞ্চিত ৩৮ জনকে নিয়োগের নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। রায়ের অনুলিপি পাওয়ার ৬০ দিনের মধ্যে তাদের নিয়োগ দিতে বলা হয়েছে সরকারকে।

বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের (পিএসসি) সুপারিশ থাকার পরও এই ৩৮ জনকে বাদ দিয়ে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগ দেয় সরকার। ২০১৮ সালের ৩১ জুলাই এ নিয়োগের গেজেট প্রকাশ করা হয়। গেজেট প্রকাশের তারিখ থেকে জ্যেষ্ঠতাসহ ৩৮ জনকে চাকরিতে নিয়োগ দিতে বলা হয়েছে রায়ে।

নিয়োগ না দেওয়ার বৈধতা প্রশ্নে জারি করা রুল যথাযথ ঘোষণা করে করে বুধবার এ রায় দিয়েছে বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাই কোর্ট বেঞ্চ।

আদালতে রুলের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী সালাহ উদ্দিন দোলন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ওয়ায়েস আল হারুনী। এর আগে গত ২৮ জানুয়ারি ৩৪ ও ৩৫ তম বিসিএসর ২৭ জনের নিয়োগের বিষয়েও একই রায় দিয়েছিল একই বেঞ্চ।

নিয়োগ বঞ্চিত ওই ২৭ জনের মধ্যে ৩৪তম বিসিএসের ছিলেন ১ জন। আর ৩৫তম বিসিএসের ছিলেন ২৬ জন।

৩৬ তম বিসিএসের নিয়োগ বঞ্চিত এই ৩৮ জনের মধ্যে পাঁচজনকে প্রশাসন ক্যাডারে, একজনকে পররাষ্ট্র ক্যাডারে, ২১ জনকে শিক্ষা ক্যাডারে, ছয়জনকে কৃষি ক্যাডারে, দুইজনকে স্বাস্থ্য ক্যাডারে, একজনকে তথ্য ক্যাডারে ও দুইজনকে পশু সম্পদ ক্যাডারে নিয়োগের সুপারিশ ছিল পিএসসির।

বুধবার রায়ের পরে আইনজীবী সালাহ উদ্দিন দোলন সাংবাদিকদের বলেন, “সুপারিশ থাকার পরও তারা নিয়োগ বঞ্চিত হন। পরে মো. জাহাঙ্গীর আলমসহ নিয়োগ বঞ্চিত ৩৮ জন সুপারিশের তারিখ থেকে নিয়োগ চেয়ে গত বছর রিট করেন।

আদালত ওই বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি রুল জারি করেছিলেন। বুধবার এ রুল যথাযথ ঘোষণা করে রায় দিয়েছেন হাই কোর্ট। রায়ে আদালত এই ৩৮ জনকে ২০১৮ সালের ৩১ জুলাই থেকে জ্যেষ্ঠতাসহ নিয়োগ দিতে নির্দেশ দিয়েছেন।”

এদিকে বিসিএসে নিয়াগ বঞ্চিতদের নিয়ে দেওয়া সব রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আপিলে যাবে বলে জানিয়েছেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ওয়ায়েস আল হারুনী।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।