২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং, বৃহস্পতিবার
২৫শে জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

অবশেষে তিন দিন পর বন্ধ হলো নলকূপ থেকে গ্যাস উদগিরণ

প্রকাশিত: ২:১২ অপরাহ্ণ , ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২০

অবশেষে তিন দিন পর বন্ধ হলো নলকূপ থেকে গ্যাস উদগিরণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ সালদা গ্যাস ফিল্ড থেকে দুই কিলোমিটার দুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার বায়েক ইউনিয়নের একটি বিদ্যালয়ে নতুন বসানো হচ্ছে এমন একটি নলকূপ থেকে অনবরত তীব্র গতিতে গ্যাস, বালু ও পানি নির্গমন অবশেষে তিন দিন পর বন্ধ হয়েছে  শুক্রবার রাত আটটার দিকে নির্গমন বন্ধ হয় বলে নিশ্চিত করেছেন সালদা গ্যাস ফিল্ডের প্ল্যান্ট অপারেটর রেজাউল করিম।

ক্ষতিগ্রস্ত বিদ্যানগর গ্রামের শেরে বাংলা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আল মামুন ভূঁইয়ার দাবি, তিন দিন ধরে ভূগর্ভ থেকে টানা গ্যাস, বালু ও পানি উঠে আসায় প্রায় এক কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। তিনি জানান, নতুন করে আর গ্যাস নির্গমন না হলে আগামীকাল রোববার থেকে বিদ্যালয়ের কার্যক্রম শুরু হবে।

এর আগে গত বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল আটটার দিকে সরকারিভাবে বিদ্যালয়ে গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্পের অংশ হিসেবে প্রায় ৫৪০ ফুট পর্যন্ত খননের পর হঠাৎ করে বিকট শব্দে পানির সঙ্গে গ্যাস ও বালু নির্গত হতে থাকে। এরপর থেকে তিন দিন অব্দি অনবরত উদগিরণ হচ্ছিল। একটানা তিন দিন ভূগর্ভস্থ বালু উঠে আসায় বিদ্যালয়ের পুরো মাঠ বালু ও পানিতে ডুবে যাওয়ার পাশাপাশি শহীদ মিনার ও পুরনো একটি নলকূপ দেবে যায়। ধ্বসে পড়ে পশ্চিম পাশের সীমানা প্রাচীর এবং দুটি ফলজ গাছ। বিদ্যালয়ের দুটি ভবনও ধ্বসে পড়ার উপক্রম হয়  এ অবস্থায় বিদ্যালয়ের সকল আসবাবপত্র অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়।

এরই মধ্যে উপজেলা প্রশাসন নিরাপত্তাজনিত কারণে বিদ্যালয় জরুরি বন্ধ ঘোষণা করে। স্থানীয়দের মাঝেও আতঙ্ক দেখা দেয়। সকলকে সতর্ক করতে বিদ্যালয়ের চারদিকে লাল নিশান টানানো হয়। এছাড়া বিদ্যালয় লাগোয়া একটি পরিবারকে অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়। গ্যাসের চাপের তীব্রতার কারণে আশপাশের মানুষকে আগুন ব্যবহারে সতর্ক থাকার আহবান জানানো হয় এ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রোডাকশন কোম্পানি (বাপেক্স) এর একটি প্রতিনিধি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য গ্যাস ও বালুর নমুনা সংগ্রহ করেন।

কোম্পানির জিওলজিক্যাল বিভাগের বিশেষজ্ঞরা এ বিষয়ে ৭২ ঘন্টা পর্যবেক্ষণ করার কথা বলেন। এরই মধ্যে শুক্রবার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে গ্যাস ও বালু নির্গমন কমে আসে। রাত আটটার দিকে তা একেবারে বন্ধ হয়। কূপের পানিও কয়েক ফুট নিচে নামে।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।