২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং, শনিবার
২৭শে জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

নড়াইলের ছেলে অভিষেকের মা-বাবার মুখে শুধুই আনন্দের হাসি

প্রকাশিত: ২:০৭ অপরাহ্ণ , ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২০

নড়াইলের ছেলে অভিষেকের মা-বাবার মুখে শুধুই আনন্দের হাসি
নড়াইল প্রতিনিধিঃ ছোট থেকেই ভীষণ ডানপিটে ছিল অরণ্য (অভিষেক)। দল বেধে খেলাধূলা আর বাড়ির পাশে চিত্রা নদীতে সাতার কাটা ছিল নিত্যদিনের কাজ। তাই প্রায়ই ছোটখাটো দুর্ঘটনার মুখোমুখি হতো। এ নিয়ে শাসন্ও করতাম।  উজ্জ্বল রায় নড়াইল জেলা  প্রতিনিধি জানান,    আর শাসন করলেই রাগ করে বাড়ি থেকে চলে যেত পাশের জেঠুর বাড়ি আর নয়তো কোনো বন্ধুর বাড়িতে। বাংলাদেশ জাতীয় অনুর্ধ ১৯ ক্রিকেট দলে আমার ছেলে খেলবে স্বপ্নেও ভাবিনি কখনো। খুলনা ষ্টেডিয়ামে যখন ট্রায়াল হয় তখন্ও (তারিখ মনে নেই) ভাবিনি অরণ্য ট্রায়ালে টিকে যাবে। ঈশ্বরের কৃপায় চূড়ান্ত পর্যায়ের অনুশীলনে যখন ঢাকায় যাবার সুযোগ পেয়েছে তখন মনে মনে ভাবতে শুরু করেছি ও একটা কিছু করে ফেলবে।
এ কথাগুলো বলছিলেন জাতীয় অনুর্ধ-১৯ ক্রিকেট দলের সদস্য অভিষেক দাস ওরফে অরণ্যের বাবা অসিত দাস।
অসিতের বাড়ি নড়াইল পৌরসভার বাধাঘাট চত্বরে। গতকাল সোমবার বিকেলে অরণ্যের বাড়িতে গেলে বাবা-মা দুজনেই ঘর থেকে বেরিয়ে আসেন। কুশলাদি জানতে চাইলে প্রথমেই প্রাণখুলে হাসি আর হাসি। অসিত দাস বলেন,ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করেছি,মানত করেছি বাংলাদেশ যেন যুব বিশ্বকাপ ক্রিকেটে চ্যাম্পিয়ন হয়।  ঈশ্বর আমাদের ডাক শুনেছেন। বাংলার মুখ বিশ্ব দরবারে ছেলেরা উজ্জল করেছে। অরণ্য বাড়িতে ফিরলে মানত পূরণ করতে পূজার আয়োজন করবো। আমাদের পরিবার আশা করে অরণ্য যেন মাশরাফির আদর্শে অনুপা্রণিত হয়ে মাশরাফিসহ নড়াইল তথা বাংলাদেশের মুখ উজ্জল করতে পারে।
তিনি বলেন,রোববার শেষ অবধি দলের খেলা দেখেছি। বাড়ির পাশে বাধাঘাট চত্বরে বড় পর্দায় অনেক মানুষ বাংলাদেশের খেলা উপভোগ করেছেন। বাংলাদেশ বিজয়ী হলে শহরে বিশাল মিছিল বের হয়।আতশবাজির ফুয়ারা ছোটে। শহরের সমস্ত মানুষ রাস্তায় নেমে আসে। মিছিলটি মাশরাফির বাড়ি পর্যন্ত যায় । সেখানেও মিছিলে অংশ নেওয়া মানুষ আতশবাজি পোড়ায়।
অরণ্যের মা করুনা দাসের মুখের হাসি যেন ফুরায় না। তিনি বলেন এত আনন্দ জীবনে কোনদিন পাইনি। আমাদের সন্তান সমগ্র বাংলাদেশের মানুষের সন্তান। বাংলাদেশ জয়ী হ্ওয়ায় আমরা গর্বিত। অভিষেক দাস নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজে থেকে এবার এইচ,এস,সি পরীক্ষা দেবে। তাদের সন্তানের জন্য  সকলের কাছে আর্শীবাদকামনা করেছেন। উজ্জ্বল রায় নড়াইল জেলা  প্রতিনিধি জানান।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।