১লা এপ্রিল, ২০২০ ইং, বুধবার
৮ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী

লক্ষ্মীপুরে হঠাৎ জ্বর, ঠান্ডা-কাশির প্রকোপ: হাসপাতালে ভিড়

প্রকাশিত: ৭:৫০ অপরাহ্ণ , ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০

লক্ষ্মীপুরে হঠাৎ জ্বর, ঠান্ডা-কাশির প্রকোপ: হাসপাতালে ভিড়

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে এখন ঘরে ঘরে জ্বর-ঠাণ্ডা ও কাশির প্রকোপ। এগুলো বেশিরভাগই ভাইরাসজনিত জ্বর। তাই দ্রুত একজন থেকে আরেকজনে ছড়ায়।

পরিবারের এক জনের হলে রক্ষা পায় না অন্যরাও। এই জ্বর বড় বড় জটিলতায় না ফেললেও ভোগায় বেশ। শিশু ও বয়স্কদের জটিলতা বেশি দেখা যায়। জনসচেতনতার মাত্রা বাড়ানো খুবই জরুরি বলে মনে করছেন অনেকেই।

৫০ শয্যার রায়পুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রতিদিন ৫০ থেকে ৭০ জন নারী, শিশু ও বয়স্করা কেবল আউটডোরে চিকিৎসা নিচ্ছেন। ভর্তি রয়েছে ওয়ার্ডে ধারণ ক্ষমতার চেয়ে বেশি।

সরেজমিনে বুধবার দুপুরে হাসপাতালের টিকেট কাউন্টারে আউটডোরে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীর স্বজনদের ব্যাপক ভিড় দেখা গেছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. জাকির হোসেন বলেন, জলবায়ুর প্রভাব, আবহাওয়ার বিরূপ আচরণ ও মানুষের রোগ প্রতিরোধমূলক অসচেতনতার কারণে মৌসুমী রোগের প্রকোপ বাড়ছে। জ্বর, ঠাণ্ডা ও কাশ আক্রান্তের রোগী এখন বেশি। সাথে ডায়েরিয়া ও শ্বাসতন্ত্রজনিত রোগীও আসছে। তবে ভাইরাস জ্বর হলে দুশ্চিন্তার কারণ নেই বলে জানান তিনি।

মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ইয়াছিন মাহমুদ বলেন, এ জ্বরের জন্যে কোনো অ্যান্টিবায়োটিকের দরকার নেই। জ্বরের জন্যে তিন বেলা প্যারাসিটামল খেলেই হয়। তবে সপ্তাহ খানেকের বেশি সময় ধরে জ্বর থাকলে অবশ্যই চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, মানুষ হাসপাতাল বা চিকিৎসকের কাছে আসে রোগ জটিল হয়ে ওঠার পরে। অথচ এ ধরনের রোগগুলো প্রাথমিকভাবে চিকিৎসার আওতায় আনা গেলে সবদিক থেকেই মানুষের সুরক্ষা মেলে, ভোগান্তিও কমে যায়।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।