৭ই এপ্রিল, ২০২০ ইং, মঙ্গলবার
১৩ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী

চুয়াডাঙ্গায় ২০০ বোতল ফেন্সিডিল, ৪ কেজি গাঁজাসহ মাদককারবারী আটক

প্রকাশিত: ৫:০৫ অপরাহ্ণ , মার্চ ২০, ২০২০

চুয়াডাঙ্গায় ২০০ বোতল ফেন্সিডিল, ৪ কেজি গাঁজাসহ মাদককারবারী আটক

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশের মাদকবিরোধী অভিযানে উপজেলার কুকিয়া চাঁদপুর গ্রাম হতে ২০০ বোতল ফেন্সিডিল ও ৪ কেজি গাঁজা পাচারের সময় একজনকে আটক করে পুলিশ।

পুলিশ সুত্রে, বৃহঃস্পতিবার রাত ৯ টায় চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কুুুকিয়া চাঁদপুর গ্রাম হয়ে মাদকের একটি বড় চালান পাচার হওয়ার গোপন সংবাদ পায়।

এসময় চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আবু জিহাদ ফকরুল আলম খাঁনের নেতৃত্বে এস আই একরাম হোসেন ও এস আই লাভলু সহ চুয়াডাঙ্গা থানা পুলিশের চৌকস টিম দর্শনার দিক থেকে আগত একটি হলুদ রঙের মিনি ট্রাক/পিকাপ যাহার রেজিঃ নম্বর ঢাকা মেট্রো ন ১৬-৭৭৯৩ সন্দেহজনক প্রতীয়মান হলে সিগনাল এর মাধ্যমে থামান।

এসময় গাড়ী তল্লাশী করে পিকআপের পিছনে পাটাতনের উপর ধানের পোয়ালের নিচে রাখা বিশেষ কায়দায় রক্ষিত ২০০ (দুইশত) বোতল ভারতীয় আমদানি নিষিদ্ধ কোডিন জাতীয় মাদক ফেন্সিডিল ও বাঁশ পাতার মোটা কাগজে মোড়ানো ০৪ (চারটি ) পোটলায় প্রতিটি পোটলায় ০১ কেজি করে সর্বমোট ০৪ কেজি গাজা পেয়ে উদ্ধার ও জব্দ করে।

এসময় গাড়ির ড্রাইভার ঝিনাইদাহ জেলার সালিয়া থানার হাসানুজ্জামানের ছেলে মোঃ ইমরান হোসেন ( ২৮) উপস্থিত জনতার সামনে থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ তাকে আটক করতে সমর্থ হয়।

তল্লাশিকালে আসামী গাড়ির চালক মোঃ ইমরান হোসেন উদ্ধারকৃত মাদকের দায়-দায়িত্ব স্বীকার করে সহযোগী অপরাধীদের নাম প্রকাশ করে। আসামিকে এই ঘটনা সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ করে গডফাদারকে আটক করবে বলে জানায় পুলিশ।

এ বিষেয় চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আবু জিহাদ ফকরুল আলম খাঁন
এসআই একরামুল হোসেন নিজে বাদী হয়ে ২০১৮ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা উক্ত আসামীর বিরুদ্ধে একটি মাদক মামলা দায়ের করেছেন।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।