২রা এপ্রিল, ২০২০ ইং, বৃহস্পতিবার
৯ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী

৮৫০ এজেন্টকে কেন্দ্র থেকে বের কারার অভিযোগ বিএনপির

প্রকাশিত: ১২:০৬ অপরাহ্ণ , মার্চ ২১, ২০২০

৮৫০ এজেন্টকে কেন্দ্র থেকে বের কারার অভিযোগ বিএনপির

সিএনআই ডেস্ক: ঢাকা-১০ সংসদীয় আসনের উপনির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শেখ রবিউল আলমের ৮৫০ এজেন্টকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত ধানের শীষের এজেন্টসহ ২৪ জনকে আটক করা হয়েছে বলে দাবি করেছে দলটি।

এছাড়া বিভিন্ন কেন্দ্রে আওয়ামী লীগের কর্মীদের হামলায় বিএনপির কমপক্ষে পাঁচ নেতাকর্মী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

হাজারীবাগ থানা বিএনপির সভাপতি মজিবুর রহমান মজু জানান, নিউমার্কেট সমাজকল্যাণ কেন্দ্রে থেকে বিএনপির সাত নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সকাল ৯টায় হাজারীবাগ থানা যুবদলের সভাপতি লিটন এবং ছাত্র নেতা সেলিমকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ধানমন্ডির ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে তাদের বের করে দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া কাঁঠালবাগান খান হাসান স্কুল, নিউমার্কেট বলাকা সিনেমা হল কেন্দ্র, রায়ের বাজার হাই স্কুল কেন্দ্র রাজমশুর স্কুল, প্রগতি স্কুল কেন্দ্র থেকে বিএনপির সকল এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এদিকে বিভিন্ন কেন্দ্রে সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনাও ঘটেছে। ধানমন্ডির একটি কেন্দ্রে মানবজমিনের এক ফটোসাংবাদিককে সেখানকার দায়িত্বরত পুলিশ বের করে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই সাংবাদিকের নাম জীবন আহমেদ।

তিনি বলেন, আমি ধানমন্ডির একটি কেন্দ্রে ছবি তুলতে গেলে পুলিশ আমাকে কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়। তারা আমাকে বলে ১২টার পর আসার জন্য। পরে আমি অন্য একটি কেন্দ্রে গেলে পুলিশ এবং সরকারদলীয় লোকজন আমাকে বাধা দেয়।

প্রশাসনের সহযোগিতায় আওয়ামী লীগের ‘সন্ত্রাসীরা’ সকল কেন্দ্র থেকে ধানের শীষের এজেন্টদের বের করে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির প্রার্থী শেখ রবিউল আলম রবি।

শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় ধানমন্ডি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটদান শেষে তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এক হয় সব কেন্দ্র থেকে ধানের শীষের এজেন্টদের বের করে দিয়েছে।

রবি বলেন, সরকার নির্বাচনকে একটি প্রহসনে পরিণত করছে। নির্বাচনের নামে প্রহসন চলছে। আমার প্রায় ৮৫০ জন এজেন্টকে বের করে দিয়েছে।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।