৩রা এপ্রিল, ২০২০ ইং, শুক্রবার
৯ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী

‘স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপর আর ভরসা কইরেন না এই বেলা: ফারুকী

প্রকাশিত: ১:৪২ অপরাহ্ণ , মার্চ ২৩, ২০২০

‘স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপর আর ভরসা কইরেন না এই বেলা: ফারুকী

 

বিনোদন ডেস্কঃ দিন দিন করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা  বেড়েই চলেছে। এবার বাংলাদেশের হাসপাতালগুলাতে  করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা ও সাধারণ মানুষদের চিকিৎসা নিয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছেন জনপ্রিয় নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। পোস্টে তিনি  সবার চিকিৎসার  অধিকার নিয়ে প্রশ্ন তুলেন এবং সবাইকে অনুরোধ করেন ‘স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপর আর ভরসা না করতে।

 

জনপ্রিয় নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী তার ফেসবুকে লিখেছেন- ‘আমেরিকার আর্মি নাকি চিন্তা করছে নিউইয়র্ক সিটির হোটেলগুলাকে হাসপাতালে পরিণত করার। যত হাসপাতাল আছে সব রোগীতে ভরে যাচ্ছে। তাই তাদের এই ভাবনা। আর আমরা হাসপাতাল থাকার পরও কাজে লাগাবো না? এই তিনদিনে কতগুলা মন ভেঙে দেয়ার ঘটনা যে শুনেছি। জ্বর হয়েছে, কোনো প্রাইভেট হাসপাতাল নিচ্ছে না। কাশি হয়েছে, নিচ্ছে না। ডায়রিয়া হয়েছে, নিচ্ছে না। আজকে শুনলাম কিডনির রোগীর ডায়লাইসিস করাবে, ইউনাইটেড হাসপাতাল করবে না। কারণ রোগী কিছুদিন আগে ইন্ডিয়া থেকে এসেছে। হচ্ছেটা কী দেশে? মানুষ কী বিনা চিকিৎসায় মারা যাবে?’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘কেন প্রাইভেট হাসপাতালগুলাকে করোনা চিকিৎসা করার জন্য প্রস্তুত করা হবে না? নির্ধারিত সরকারি হাসপাতাল কয়জনের চিকিৎসা দিতে পারবে? করোনা ছাড়াও মানুষের জ্বর, শ্বাসকষ্ট হতে পারে। তাদের কি চিকিৎসা পাওয়ার অধিকার নাই? করোনা রোগীরও কী চিকিৎসা পাওয়ার অধিকার নাই? সরকারে থাকা বন্ধুরা, আপনারা কী দয়া করে এই জিনিসগুলা অ্যাড্রেস করতে পারেন? নিশ্চিত করতে পারেন মানুষ যে কোনো রোগ নিয়ে যে কোনো হাসপাতালে গেলেই চিকিৎসা পাবে। তার জন্য যা যা করা দরকার, পিপিই-ট্রেনিং যা লাগে দ্রুত করান। দরকার লাগে হাই পাওয়ার টাস্কফোর্স করেন টপ ডাক্তার আর সশস্ত্র বাহিনীর লোকজন দিয়ে।’

সবশেষে ফারুকী লিখেছেন, ‘স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপর আর ভরসা কইরেন না এই বেলা। দুই মাস সময় পাইয়াও তারা যে নিদারুণ অযোগ্যতা আর অবহেলার পরিচয় দিছে, তার জন্য তাদেরকে ইতিহাসের কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।