বৃহস্পতিবার, ২৮শে মে, ২০২০ ইং

শেরপুরে সাড়ে ৮ হাজার পরিবার পেয়েছে খাদ্য সামগ্রী

প্রকাশিত: ৩:৪১ অপরাহ্ণ , মার্চ ৩১, ২০২০

শেরপুরে সাড়ে ৮ হাজার পরিবার পেয়েছে খাদ্য সামগ্রী

শেরপুর প্রতিনিধিঃ  করোনা ভাইরাসজনিত পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষনা মোতাবেক সারাদেশের ন্যায় শেরপুরেও তাৎক্ষণিক মানবিক সহায়তা কার্যক্রমের আওতায় কর্মহীন হতদরিদ্র পরিবারগুলোর মাঝে চাউলসহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাবার ও অন্যান্য সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রয়েছে। ওই কার্যক্রমের আওতায় সোমবার রাত পর্যন্ত টানা ৩ দিনে জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুবের নির্দেশনায় জেলায় ৮ হাজার ৪ শ পরিবারের মাঝে ওই সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাগণ। এদিকে, ওই কর্মসূচি চলমান রাখতে সোমবার রাতে জেলায় আরও ১ শ মেট্রিক টন চাল ও ৩ লক্ষ টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে ৩ দফায় জেলায় মোট
বরাদ্দের পরিমান দাঁড়াল ৩ শ মেট্রিক টন চাল ও ১২ লক্ষ টাকা।

জানা যায়, ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রালয়ের আওতায় দু’দফায় বরাদ্দ পাওয়া ২ শ মেট্রিকটন চাল ও ৯ লক্ষ টাকার বিপরীতে উপ-বরাদ্দমূলে সোমবার শেরপুর সদর উপজেলায় ৪০৫০টি পরিবারকে ৪০.৫ মেট্রিক টন চাল, নকলা উপজেলায় ২৯৫ টি পরিবারকে ২.৯৫ মেট্রিক টন চাল, নালিতাবাড়ী উপজেলায় ১৩০০ টি পরিবারকে ১৩ মেট্রিক টন চাল, শ্রীবরদী উপজেলায় ১৫০০টি পরিবারকে ১৫ মেট্রিক টন চাল ও ঝিনাইগাতী উপজেলায় ৪০৫০টি পরিবারকে ৪০.৫ মেট্রিক টন চাল এবং মোট ৪,৬৩,২৭৫ টাকা মূল্যের অন্যান্য খাদ্য সামগ্রী (ডাল, আলু, লবণ,তেল, সাবান) বিতরণ করা হয়। শনিবার থেকে ওই কার্যক্রম চলছে। প্রথম দিনে জেলার ৫ উপজেলায় ৭৫ পরিবার ও দ্বিতীয় দিনে ১৮০ পরিবারকে ওই সহায়তা দেওয়া হয়। প্রথমভাগে জেলা প্রশাসক আনার
কলি মাহবুব শহরের কিছু এলাকায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে ওই খাদ্যসহ অন্যান্য সামগ্রী তুলে দেন। আর একইভাবে উপজেলা পর্যায়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাগণ ওই সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন।

এ ব্যাপারে শেরপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এবিএম এহসানুল মামুন মঙ্গলবার দুপুরে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ঘোষনা অনুযায়ী কর্মহীন, দরিদ্র- অসহায়, দিনমজুর, কর্ম-অক্ষম ও অসচ্ছল নাগরিকদের সুষ্ঠু তালিকা প্রননয়নের মাধ্যমে তাদের মাঝে ওই মানবিক সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। এটি পরিস্থিতির আলোকে চলমান থাকবে। তিনি আরও জানান, ইতোমধ্যে সোমবার রাতে ওই কর্মসূচির আওতায় জেলায় আরও ১ শ মেট্রিকটন চাল ও ৩ লক্ষ টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।