বুধবার, ২৭শে মে, ২০২০ ইং

দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে ক্রিকেট খেলা কনে ছাড়া বিয়ের মতো : শোয়েব

প্রকাশিত: ২:১৭ অপরাহ্ণ , মে ১৯, ২০২০

দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে ক্রিকেট খেলা কনে ছাড়া বিয়ের মতো : শোয়েব

স্পোর্টস ডেস্ক: প্রতিনিয়ত মজার সব উক্তি দিয়ে খবরের শিরোনাম হওয়া যেন এখন অভ্যাসে পরিণত হয়েছে পাকিস্তানের সাবেক পেসার শোয়েব আখতারের। ক্রিকেটীয় বিশ্লেষণের পাশাপাশি রসবোধসম্পন্ন মন্তব্য করতেও বেশ পারদর্শী এ গতিতারকা।

সবশেষ যেমন দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে ক্রিকেট খেলাকে তুলনা করেছেন কনে ছাড়া বিয়ের মতো। সবার জানা, যেকোন বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার জন্য বর-কনে উভয়েরই উপস্থিতি দরকার। কিন্তু বিয়েতে কনে না থাকলে যেমন বিয়ে হবে না, তেমনি মাঠে দর্শক না থাকলে সেটা ক্রিকেট হবে না বলে মন্তব্য করেছেন শোয়েব।

করোনাভাইরাসের কারণে ক্রিকেট আপাতত বন্ধ। আশা করা হচ্ছে, আগামী জুলাইয়ে ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার সিরিজ দিয়ে ফের মাঠে গড়াবে খেলা। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঝুঁকি এড়াতে তখন গ্যালারিতে কোন দর্শক থাকতে দেয়া হবে না।

এটিই পছন্দ হচ্ছে না শোয়েবের। এক ভিডিওবার্তায় তিনি বলেন, ‘দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে খেলা হয়তো ক্রিকেট বোর্ডগুলোর কাছে ভালো মনে হতে পারে। তবে আমরা এটিকে সমর্থন দিতে পারি না। খালি স্টেডিয়ামে খেলা কনে ছাড়া বিয়ের মতো। আমাদের খেলার জন্য দর্শক লাগবেই। আমি আশা করি এক বছরের মধ্যেই এ করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে।’

এসময় তিনি ক্রিকেটীয় কথাও বলেছেন। জানিয়েছেন ২০০৩ সালের বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে শচিন ৯৮ রানে আউট হওয়ায় কষ্টই পেয়েছিলেন সেদিন। পাকিস্তানের বিপক্ষে সেই ম্যাচে ৭৫ বলে ৯৮ রান করেছেন শচিন।

শোয়েব বলেন, ‘শচিন যখন ৯৮ রানে আউট হয়ে গেল, আমি খুব কষ্ট পেয়েছিলাম। সে ইনিংসটা স্পেশাল ছিল। তার সেঞ্চুরি পাওয়া উচিৎ ছিল। আমি চাচ্ছিলাম সে সেঞ্চুরি করুক। যে বাউন্সার তাকে করেছিলাম, সেটায় ছক্কা হাঁকালেও মন খারাপ হতো না।’


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।