সোমবার, ২৫শে মে, ২০২০ ইং

বাউল রণেশ ঠাকুরের ঘরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় জবি মুক্তমঞ্চ পরিষদের উদ্বেগ 

প্রকাশিত: ১০:১৬ পূর্বাহ্ণ , মে ২০, ২০২০

বাউল রণেশ ঠাকুরের ঘরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় জবি মুক্তমঞ্চ পরিষদের উদ্বেগ 
জবি প্রতিনিধিঃ প্রখ্যাত বাউল শিল্পী রণেশ ঠাকুরের ঘরে রহস্যজনক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে জড়িতদের শাস্তির দাবি জানিয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় মুক্তমঞ্চ পরিষদ। মঙ্গলবার (১৯ মে) রাতে এঘটনায় মুক্তমঞ্চ পরিষদের সভাপতি মো. নাঈম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক সৌরভ দেব এক যৌথ বিবৃতি দেন।
বিবৃতিতে বলা হয়, আমরা গভীর উদ্বেগের সাথে বলতে চাই, এ ঘটনার মধ্য দিয়ে আবারও প্রমাণিত হলো বর্তমান বাংলাদেশে সাংস্কৃতিক চর্চা কতটা হুমকির মুখে! এখনই যদি এই অপরাধীদের উপযুক্ত শাস্তির বিধান না করা হয় তবে ভবিষ্যৎ-এ এমন ঘটনার পূণরাবৃত্তি ঘটবে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চ পরিষদ রণেশ ঠাকুরের প্রতি গভীর সমবেদনা ও অপরাধীদের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানাচ্ছে। পাশাপাশি দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানাচ্ছে।
বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আমরা পূর্বেও অনেক ব্লগার,সাহিত্যিক এবং বাউল শিল্পীদের উপর বর্বর নির্যাতন চালানো দেখেছি। যেগুলোর উপযুক্ত শাস্তির বিধান না হওয়ার ফলেই এমন একটি ঘটনার পূণরাবৃত্তি ঘটেছে বলে আমরা মনে করি। ফলশ্রুতিতে আমরা বলতে চাই, বর্তমনা ঘটনার অপরাধীদের পাশাপাশি পূর্বের ঘটনার দোষীদেরও উপযুক্ত শাস্তির আওতায় আনা হোক। তা না হলে বাঙালি জাতি ভবিষ্যৎ এ সাংস্কৃতিক পরিচয় হারিয়ে ফেলবে।
উল্লেখ্য, গত রবিবার (১৭ মে) মধ্যরাতে সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার উজানধন গ্রামে অবস্থানরত বাউল শিল্পী রণেশ ঠাকুরের আস্তানায় আগ্নি সংযোগ করা হয়। এঘটনায় রণেশ ঠাকুরের চল্লিশ বছরের সাধনার বইপত্র, বাদ্যযন্ত্রসহ তার সঙ্গীতচর্চার বিভিন্ন যন্ত্রপাতি ও ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।