সোমবার, ৬ই জুলাই, ২০২০ ইং

ঝড় এলেই কেঁপে ওঠে হাফিজার বুক!

প্রকাশিত: ৩:২৪ অপরাহ্ণ , মে ২০, ২০২০

ঝড় এলেই কেঁপে ওঠে হাফিজার বুক!

ঈশ্বরগঞ্জ প্রতিনিধি:  পল্লীকবি জসীম উদ্দীনের আসমানী কবিতার সাথে মিল রেখে বলা যায় হাবিজারে দেখতে যদি তোমরা সবে চাও আশরাফ আলীর ছোট্ট বাড়ি লক্ষীপুরে যাও। লক্ষীপুর গ্রামটি ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার বড়হিত ইউনিয়নে। সে গ্রামে গিয়ে দেখা যায়ক দিনমজুর স্বামী আশ্রব আলীর (৫৫) দুই শতক ভিটের উপর কাশবনের বেড়ায় এক চালা টিনের ছোট্ট একটি ঘরে হাবিজা তার স্বামী-সন্তান নিয়ে বসবাস করে আসছেন।

গুটি কয়েক খুঁটির উপর দাঁড়িয়ে থাকা ঘরটির অবস্থা খুবই নাজুক। একটু খানি বাতাস এলেই ঘরটি নড়বড় করে। সামান্য বৃষ্টি হলে ঘরের ভেতর পানি গড়িয়ে পড়ে। অবস্থা দৃষ্টে মনে হয় ঘরতো নয়, যেন পাখির বাসা। আকাশে মেঘ জমলেই হাবিজার বুকটা কেঁপে উঠে। কখন জানি ঝড়ে তার ঘরটি উড়িয়ে নিয়ে যায়। জরাজীর্ণ ঘরটিতে আতঙ্ক নিয়েই কাটে হাবিজার প্রতিটি মুহূর্ত।

হাবিজা জানান স্বামী আশ্রব আলী একজন দিনমজুর। কখনো রিকশা চালিয়ে আবার কখনো কাঠ কেটে জীবিকা নির্বাহ করে থাকেন। তারা উপার্জিত আয়ে চলে সংসার। তার এক ছেলে এক মেয়ে। মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন। ছেলেকে বিয়ে করিয়েছেন। ছেলেটি স্থুল বুদ্ধি সম্পন্ন হওয়ায় তার পক্ষে কোন আয় রোজগার করা সম্ভব নয়। তাই ছেলের স্ত্রী দুই সন্তানও বৃদ্ধ পিতার উপার্জনের ওপর নির্ভরশীল।

ছেলেকে বিয়ে করানোর পর থেকে হাবিজা ও তার স্বামী ঘর ছেড়ে পাশের বাড়ির খোলা বারান্দায় ঘুমিয়ে রাত কাটান। হাবিজা দুঃখ করে বলেন, জমি আছে ঘর নেই প্রকল্পের আওতায় উপজেলা থেকে অনেক অসহায় পরিবারকে ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হলেও আমরা কারো নজরে পড়িনি।

সুশাসনের জন্য নাগরিক সুজন ঈশ্বরগঞ্জ শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রাজু উপজেলা প্রশাসনের স্বেচ্ছাসেবী হিসাবে সম্প্রতি ওই পরিবারে ত্রান পৌঁছে দিতে গিয়ে বিষয়টি তার নজরে আসে। পরে তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করলে বিষয়টি সকলের দৃষ্টি গোচর হয়।

হাবিজা জানান, এবারের ঝড়ে ঘরটি বিধ্বস্ত হলে পরিবার পরিজন নিয়ে খোলা আকাশের নিচে থাকতে হবে। একটি ঘর নির্মান করে দিতে তিনি দেশের হৃদয়বান দানশীল ব্যক্তিদের সহযোগিতা আশা করেছেন। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ জাকির হোসেন জানান বিষয়টি মানবিক। বর্তমান পরিস্থিতির উন্নতি হলে খোঁজ নিয়ে পরিবারটির জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।