রবিবার, ৫ই জুলাই, ২০২০ ইং

মানবতার বাজারে বিনামূল্যে মিলছে শাড়ি-লুঙ্গি-খাবার

প্রকাশিত: ১০:৪১ অপরাহ্ণ , মে ২৪, ২০২০

মানবতার বাজারে বিনামূল্যে মিলছে শাড়ি-লুঙ্গি-খাবার

কিশোরগঞ্জে ঈদে মানবতার বাজারে বিনামূল্যে মিলছে শাড়ি-লুঙ্গি, সেমাইসহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী। কিশোরগঞ্জ শহরের বিন্নগাঁওয়ের ঐতিহ্যবাহী নিরালা হোটেল মালিকের ভবনের বিশাল আঙিনাজুড়ে বসেছে এই মানবতার বাজার।

অসংখ্য টেবিলে সাজানো রয়েছে নতুন শাড়ি-লুঙ্গি, সেমাই, দুধ- চিনি, সাধারণ ও পোলাও চাল, ডাল-তেল, লবণ-পেঁয়াজ, সাবান-শ্যাম্পু ও মাস্ক- হ্যান্ড স্যানিটাইজারসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী। সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্য বিধি বজায় এ বাজারে প্রবেশ করছেন দরিদ্র জনগোষ্ঠীর বিভিন্ন বয়সের অসহায় ও বেকার নারী-পুরুষ।

সাবান পানিতে ভালো করে হাত ধুয়ে ও শরীরে স্প্রে করে এবং মুখ মাস্ক পড়ে একে একে প্রবেশ করে বিভিন্ন টেবিল ঘুরে প্রতিটি আইটেমের প্যাকেট ব্যাগে ভর্তি করে যার যার মতো হাসি মুখে বেরিয়ে আসছেন।

প্রতিটি পণ্যের টেবিলের কাছে একজন করে গাইড দাঁড়িয়ে আছেন। চার থেকে পাঁচজন করে ক্রেতা এক সঙ্গে প্রবেশ করতে পারেন এ বাজারে।

কোনো প্রকার ঝামেলা ছাড়াই প্রথম টেবিল থেকে নির্বিঘ্নে প্রতিটি টেবিল ঘুরে পুরো ব্যাগ ভর্তি ঈদের উপহার নিয়ে নির্দিষ্ট পথে বেরোনোর এ আয়োজন অবাক করার মতো। করোনার সংক্রমণ আতঙ্কে ঘরবন্দী হয়ে বেকার মানবেতর জীবনযাপন করে দিশেহারা হয়ে পড়া অসহায় লোকজনের জন্য এ আয়োজন।

কিশোরগঞ্জ শহরের ঐতিহ্যবাহী নিরালা হোটেল লিমিটেডের অন্যতম পরিচালক জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক, জেলা সম্মিলিত নাগরিক ফোরামের প্রধান সমন্বয়কারী এনায়েত করিম এ মানবতার বাজার খুলে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন।

শহরের বত্রিশ এলাকার বাসিন্দা ষাটোর্ধ এক দিনমজুর ও চল্লিশোর্ধ্ব এক নারী গৃহকর্মী জানালেন, দিন শেষ হলেই ঈদ। কিন্তু ঘরে ঈদ আয়োজনের কিছুই ছিল না। ছেলে মেয়ে নিয়ে তারা খুবই দুশ্চিন্তায় ছিলেন। এ মানবতার বাজার পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঈদ উৎসব উদযাপনের সুযোগ করে দিল।

ব্যক্তিগত উদ্যোগে এ ব্যতিক্রমী মানবতার বাজারের আয়োজক এনায়েত করিম অমি জানালেন, করোনা সঙ্কটে নিপতিত দরিদ্র ও শ্রমজীবী জনগোষ্ঠীর লোকজন এখন অসহায় ও দিশেহারা। তাদের মুখে হাসি ফোটাতেই ঈদ উৎসবকে সামনে রেখে এ আয়োজন।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।