রবিবার, ৫ই জুলাই, ২০২০ ইং

জালালপুর ইকো রিসোর্ট এ কম্ব্যাটিং কোভিট ১৯ এর উপর কর্মশালা

প্রকাশিত: ৭:৫৪ অপরাহ্ণ , মে ৩১, ২০২০

জালালপুর ইকো রিসোর্ট এ কম্ব্যাটিং কোভিট ১৯ এর উপর কর্মশালা
সিএএআই ডেস্কঃ গত ঊনত্রিশে মে  শুক্রবার জালালপুর ইকো রিসোর্ট কতৃক কম্ব্যাটিং কভিড১৯ এর উপর বিশেষ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো । কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন۔۔ জালালপুর ইকো রিসোর্টের কর্মকর্তা কর্মচারীগণ । স্থানীয় স্বাস্থকর্মীদের ভাষ্যমতে বর্তমান করোনা ভাইরাসের প্রভাবে হোটেল ও রিসোর্টগুলো যেখানে মুমূর্ষু অবস্থা সেখানে করোনা মোকাবেলায় জালালপুর ইকো রিসোর্টের এই উদ্যোগ নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার ।
কর্মশালাটিতে বাংলাদেশ ও বহির্বিশ্বে করোনা প্রাদুর্ভাব এবং আমাদের করণীয় নিয়ে আলোচনা করা হয় । এছাড়াও মাস্ক এর  ব্যবহার, ডিসিনফেক্ট স্প্রেয়ার বুথ পরিচালনা, মেডিকেল ইনফ্রারেড থার্মোমিটার ব্যবহার, গাড়ি ও অন্যান্য জিনিস ডিস্ ইনফ্যাক্ট করার পদ্ধতি হাতে কলমে শিক্ষা প্রদান করা হয় ।
এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে রিসোর্ট চেয়ারম্যান জনাব জসিম উদ্দিন আহমেদ ভূইয়াঁ বলেন “আমরা এখন যেভাবে সব কিছু দেখছি  মাস ছয়েক আগেও তা ছিল হলিউড এর কোনো মুভি প্লট । কিন্তু বাস্তবতা এখন এটাই l আর এটাই বাস্তব এটি খুব শীঘ্রই আমাদের ছেড়ে যাচ্ছে না । বাংলাদেশের পর্যটন আর হসপিটালিটি সেক্টর এর জন্য এটি কত বড়  আঘাত তা একমাত্র আমরা যারা এটি নিয়ে আছি তারাই বলতে পারবেন । গ্লোবাল হসপিটালিটি এক্সপার্টস রা বলছেন হোটেল ও রিসোর্ট এর স্বাভাবিক অনেক সেবাই নাকি অস্বাভাবিক হয়ে যাবে l হিউমান ইন্টারঅ্যাকশন কমবে, অনেকে নাকি বুফে ব্রেকফাস্ট ও উঠিয়ে দিবে l আমরা  জালালপুর ইকো রিসোর্ট এর পক্ষ থেকে আমাদের সর্বোচচ প্রচেষ্টা থাকবে এই করোনা মোকাবেলায় l আমরা মিনিমালিস্ট ইন রুম ফার্নিচার আগে থেকেই । আরো যোগ হয়েছে জায়গায় জায়গায় ডিস্ইনফ্যাক্ট  করার স্প্রেয়ার, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান । আমাদের স্টাফদের সর্বোচচ সতর্ক করা আছে, তারপরও ব্যক্তিগত লাইফস্টাইল এবং সুরক্ষা চিন্তা ম্যাটার করবে অনেক অনেক বেশি । করোনা যুদ্ধে সবচাইতে বড় অস্ত্র নিজ দায়িত্ববোধ । “


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।