১৭, আগস্ট, ২০১৯, শনিবার | | ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

বন্যায় ১৪০ মৃত্যু, ঘরছাড়া লাখো মানুষ

প্রকাশিত: ১:১৭ অপরাহ্ণ , আগস্ট ১২, ২০১৯

বন্যায় ১৪০ মৃত্যু, ঘরছাড়া লাখো মানুষ

মৌসুমি বৃষ্টিপাতের ফলে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে ভারতে এখন পর্যন্ত অন্তত ১৪০ জন মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। বন্যার কবলে পড়ে ঘরছাড়া হয়েছেন কয়েক লাখ মানুষ। এনডিটিভি জানিয়েছে, মহারাষ্ট্র, কেরালা ও কর্ণাটকের বন্যা পরিস্থিতি সবচেয়ে বেশি উদ্বেগজনক।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ভারতের সবচেয়ে বন্যা কবলিত হয়েছে দেশটির কেরালা রাজ্য। বন্যায় মোট মৃত্যুর অর্ধেক সেখানে। গত তিনদিনে কেরালায় ৭২ জনের মৃত্যু হয়েছে। বন্যা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সেখানে সেনাবাহিনীকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

রাজ্যটির ওয়েনাড, কান্নুর ও কাসারগদ এই তিন জেলায় রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। সেখানে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। এছাড়াও আরও ছয়টি জেলায় ‘অরেঞ্জ অ্যালার্ট’ জারি হয়েছে।

অপররাজ্য কর্ণাটকে দুই লাখেরও বেশি মানুষ ঘরছাড়া। সেখানে কমপক্ষে ৩০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

সদ্য দায়িত্ব পাওয়া রাজ্যটির মুখ্যমন্ত্রী ইয়েদুরাপ্পা জানিয়েছেন, তার রাজ্যের ১৭টি জেলার ১ হাজার গ্রাম প্লাবিত কিংবা বন্যার কবলে পড়েছে। উত্তর কর্ণাটকের মোট ৬ হাজার কোটি টাকার সম্পত্তি নষ্ট হয়েছে।

এদিকে মহারাষ্ট্রে বন্যার প্রকোপে চার লাখেরও বেশি মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়েছেন। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ রাজ্যের ভয়াবহ বন্যার জন্য ‘নজিরবিহীন’ বৃষ্টিকেই দায়ী করেছেন। রাজ্যটির তথধা ভারতের গুরুত্বপূর্ণ শহর মুম্বাইও ভয়াবহ বন্যার কবলে পড়ে।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।