১৬, সেপ্টেম্বর, ২০১৯, সোমবার | | ১৬ মুহররম ১৪৪১

যৌন নির্যাতনের দায়ে সাবেক বার্সা খেলোয়াড়ের সাজা

প্রকাশিত: ১১:০১ পূর্বাহ্ণ , সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯

যৌন নির্যাতনের দায়ে সাবেক বার্সা খেলোয়াড়ের সাজা

স্পোর্টস ডেস্ক: আরদা তুরান একজন তুরস্কের ফুটবলার যিনি তুরস্কের ক্লাব ইস্তাম্বুল বাসাকসেহির হয়ে অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার হিসেবে খেলেন। তিনি পেশাদার জীবন শুরু করেন ২০০৪ সালে তুরস্কের ক্লাব গ্যালাতাসারাই। সেখানে তিনি ২০১১ পর্যন্ত কাটান। মাঝে ২০০৬ সালে তিন খেলেন মানিসাসপোর হয়ে। ২০১১ সালে তিনি আতলেতিকো মাদ্রিদ এ যোগ দেন এবং ২০১৫ সাল পর্যন্ত খেলেন। ২০১৫ সালে তিনি বার্সেলোনায় যোগ দেন।

এতক্ষণ যে খেলোয়াড়কে নিয়ে বলছি তার নামে অভিযোগ উঠেছে তিনি একজন গায়কের নাক ভেঙেছেন মেরে, অশ্লীল মন্তব্যও করেছেন তার স্ত্রীকে নিয়ে। সেখানেই থেমে থাকেননি। হাসপাতালে গিয়ে ছুড়েছেন গুলি। ছড়িয়েছেন আতঙ্ক। আর তাই তুরস্কের এক আদালত আরদা তুরানকে আড়াই বছরেরও বেশি সাজা দিয়েছেন।

গত বছরের অক্টোবরে এক নাইটক্লাবে গায়ক বার্কে শাহিনের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়িয়ে যান তুরান। শাহিনের স্ত্রীকে নিয়ে তার কটূক্তি করাকে ঘিরেই ঝগড়ার সূত্রপাত। মারামারির এক পর্যায়ে গায়কের নাক ভেঙে দেন ৩২ বছর বয়সী ফুটবলার। ভাঙা নাক নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন শাহিন। সেখানেও হানা দেন তুরান। পিস্তল নিয়ে হাসপাতালে গিয়ে ছোড়েন গুলি। সৃষ্টি হয় আতঙ্ক।

অবৈধভাবে অস্ত্র বহন, আতঙ্ক ছড়ানো, উদ্দেশ্যমূলকভাবে মারামারি ও যৌন নিগ্রহের সেসব দায়ে বুধবার তুরানকে দুই বছর আট মাস ১৫ দিনের জেল দেন আদালত। সঙ্গে জরিমানা করা হয়েছে ২৫ লাখ টার্কিশ লিরা (৩,৫০,৬৫৮ পাউন্ড)।

জেল হলেও কারাগারে থাকতে হচ্ছে না তুরানকে। তুরস্কের আইন অনুযায়ী, প্রথমবারের মতো এ ধরনের অপরাধ করায় আপাতত রেহাই পাচ্ছেন এ মিডফিল্ডার। তবে আগামী ৫ বছরের মধ্যে কোনো ধরনের অপরাধ করলে বড় রকমের শাস্তি পেতে হবে তাকে।

২০১৫ সালে ৩৪ মিলিয়ন ইউরোতে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ থেকে তুরানকে দলে টানে বার্সা। দুই মৌসুম থাকলেও সেখানে ৫৫টির বেশি ম্যাচ খেলা হয়নি তার। পরে ২০১৮ সালে দুই বছরের জন্য ধারে ইস্তামবুল বাসাখেইর ক্লাবে যোগ দেন তুরান।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।