১৬, সেপ্টেম্বর, ২০১৯, সোমবার | | ১৬ মুহররম ১৪৪১

‘নেইমারকে ফেরাতে বার্সার ইচ্ছা নিয়ে সন্দেহ মেসির’

প্রকাশিত: ১:১৬ অপরাহ্ণ , সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯

‘নেইমারকে ফেরাতে বার্সার ইচ্ছা নিয়ে সন্দেহ মেসির’

নেইমার বার্সায় আসছে কি আসছে না- চলমান এই বিতর্কের অবসান হয়েছে চলতি মাসের ২ তারিখেই। ইউরোপিয়ান ট্রান্সফার উইন্ডোর শেষ দিন ছিল ২ সেপ্টেম্বর। এরপরই জানা হয়ে গেছে, নেইমারের কোথাও যাওয়া হচ্ছে না। পিএসজিতেই থাকছেন তিনি।

অথচ নেইমারকে ফেরানোর জন্য বার্সা কর্তৃপক্ষের কাছে নিজে মুখ ফুটে অনুরোধ করেছিলেন মেসি। তিনি সরাসরি বলেছিলেন, নেইমারকে ফিরিয়ে আনা হোক। বার্সাও দেখিয়েছে, মেসিকে খুশি করার জন্য তারা সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে; কিন্তু শেষ পর্যন্ত নেইমারকে ফেরাতেই পারলো না তারা।

মেসিরা আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন, নেইমারকে ফেরাতে না পারায় তারা অপমানিত বোধ করছেন। অন্যদিকে স্পেনের একটি ক্রীড়া দৈনিকের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে মেসি জানিয়ে দিয়েছেন, নেইমারকে ফেরাতে বার্সা যে সব কিছু করেছে বলছে, সে ব্যাপারে সন্দিহান তিনি। মেসি বললেন, ‘আমি ঠিক জানি না নেইমারকে ফেরাতে তারা সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছে কি না।’

মেসি বলেন, ‘নেইমার বার্সায় ফিরে আসুক এটা আমি খুব করে চেয়েছিলাম। সত্যি বলতে, আমি মোটেও নিশ্চিত নই যে, নেইমারকে ফেরাতে বার্সা সব কিছু দিয়ে চেষ্টা করেছে। তবে এটা জানিয়ে, কাজটা ছিল সত্যিই কঠিন।’

নেইমারকে বিশ্বের অন্যতম সেরা হিসেবেই দাবি করলেন মেসি। তিনি বলেন, ‘খেলাধুলার দিক থেকে চিন্তা করলে বলতে হয়, নেইমার বর্তমান সময়ে বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবলার। নানা কারণেই ক্লাব তাকে দলে টানার জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়তে পারতো।’

তবে মেসি বলছেন নেইমারকে দলে নেয়ার জন্য শুধু মতামত দিয়েছেন, কখনো জোরাজুরি করেননি। তবে এ বিষয়ে মোটেও হতাশ নন মেসি। সেটাও জানিয়ে দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘আমি হতাশ নই। আমাদের কাছে চমৎকার একটি স্কোয়াড রয়েছে। যারা সবার জন্যই চ্যালেঞ্জ জানাতে সক্ষম। এমনকি নেইমার ছাড়াও।’

সম্প্রতি গুঞ্জন উঠেছে, মেসিও চাইলে বার্সা ছেড়ে যেতে পারেন। কিন্তু সে সবই উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। মেসি বলেন, ‘এটা হচ্ছে (বার্সেলোনা) আমার বাড়ি, আমার ঘর। কখনোই আমার বাড়ি ছেড়ে যেতে পারবো না। তবে আমি সব কিছু জিততে চাই।’


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।