১৯, অক্টোবর, ২০১৯, শনিবার | | ১৯ সফর ১৪৪১

স্বপ্নের জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশিত: ৫:১৬ অপরাহ্ণ , সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯

স্বপ্নের জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

আসছে ২২ সেপ্টেম্বর থেকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) শুরু হচ্ছে ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষা। এ বছর ১৮৮৯ আসনের বিপরীতে লড়বে তিন লাখ ৫৯ হাজার ৯৬২ জন শিক্ষার্থী। ফলে প্রতি আসনের জন্য ভর্তি যুদ্ধে অবতীর্ণ হবে ১৯১ জন শিক্ষার্থী। কিছু টেকনিক জানা থাকলে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পাওয়া আপনার জন্য সহজ হয়ে যাবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক কিছু স্পেশাল টেকনিক।

১. প্রথমেই বিগত বছরের প্রশ্ন বুঝে বুঝে সমাধান করুন। কারণ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশ্ন কাঠামো অন্যান্য সকল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আলাদা। তাই বিগত বছরের প্রশ্নগুলো দেখলে আপনার মধ্যে একটা ধারণা জন্মাবে জাবির প্রশ্ন কাঠামো সম্পর্কে।

২. আপনার বেসিক স্ট্রং করুন। কারণ এখানকার প্রশ্নগুলো এমনভাবে করা হয় যেখানে বেসিক বিষয়গুলোকে গুরুত্ব দেওয়া হয়। ফলে যার বেসিক যতো ভালো তার চান্স পাওয়ার সম্ভাবনা ততো বেশি।

৩. জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় সকল ইউনিটেই বুদ্ধিমত্তা বা আইকিউ থেকে প্রশ্ন করা হয়। এতে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। এই আইকিউ অংশের জন্য ভালো মানের ছোট একটি বই পড়লেই যথেষ্ট। বাজারে বিভিন্ন প্রকাশনীর বুদ্ধিমত্তা সংক্রান্ত বই পাওয়া যায়। যেকোনো একটি বই কিনে কয়েক দিনে পড়ে শেষ করা সম্ভব।

৪. যারা বিজ্ঞান বিভাগের ইউনিটগুলোতে পরীক্ষা দেবেন তারা সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিন বোর্ড বইয়ে। মেইন বইয়ের সকল খুঁটিনাটি ভালোভাবে আয়ত্ত করলেই এ ইউনিটগুলোতে ভালো করা সম্ভব।

৫. জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘সি’ ইউনিটসহ আরও কিছু ইউনিটের ইংরেজি প্রশ্ন কিছুটা ব্যতিক্রমধর্মী হয়। Formal English, Informal English, Semi Formal English, Business English, Literary Terms ইত্যাদি ব্যতিক্রমধর্মী প্রশ্ন থাকে। তাই এ সকল বিষয় সম্পর্কে জেনে রাখুন।

৬. জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে সাধারণ জ্ঞান প্রশ্নগুলো বিষয়ভিত্তিক হয়, অর্থাৎ যে ইউনিটে যেসকল বিষয় আছে সেই ইউনিটে সেসকল বিষয় থেকে প্রশ্ন আসে। এই সব বিষয়ভিত্তিক সাধারণ জ্ঞানের জন্য আলাদা বই পড়ার দরকার নেই। কারণ বাজারের যেকোনো সাধারণ জ্ঞানের বইয়ে আপনি যা পড়েছেন সেগুলোই এখানে একটু অন্যভাবে আসবে। মনে করুন, বাজারের যেকোনো সাধারণ জ্ঞানের বইয়ে আপনি জার্নালিজম সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য পড়েছেন। এখান থেকেই ‘সি’ ইউনিটের জার্নালিজম সংক্রান্ত প্রশ্ন আসে। এভাবে ‘বি’ ইউনিটেও পড়তে পারেন।

৭. কখনোই হতাশ হবেন না। নিজের ওপর বিশ্বাস রাখুন। বিশ্বাস রাখুন আপনার সৃষ্টিকর্তার ওপর। আর চেষ্টা করে যান আপনি। আপনিই পারবেন।

৮. একাধিক প্রশ্ন করা যাবে এমন টপিকগুলো ভালো করে পড়ুন। কারণ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে প্রশ্ন করা হয়। আর মনে রাখবেন আপনার কাছে যেটা আজেবাজে প্রশ্ন মনে হবে সেটাই কিন্তু জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

৯. ‘এফ’ এবং ‘জি’ ইউনিটে সকল প্রশ্ন ইংরেজি ভার্সনে হওয়ায় এ দুইটি ইউনিটের সাধারণ জ্ঞান প্রশ্ন ইংরেজি ভার্সনে হয়, ‘সি’ ইউনিটের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক অংশের প্রশ্ন সহ ৫০ শতাংশ প্রশ্ন ইংলিশ ভার্সনে হয়। বাংলা ভার্সন সাধারণ জ্ঞান পড়ে এই ইউনিটগুলোতে ভালো করা কঠিন। তবে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। যদি আপনি বাংলায় ভালো ভাবে সাধারণ জ্ঞান পড়ে থাকেন তাহলে খুব বেশি কঠিন হবে না। তবে উত্তর করার আগে ভালোভাবে প্রশ্ন পড়ে বুঝতে হবে। অথবা ইংলিশ ভার্সনে রচিত সাধারণ জ্ঞান বই থেকেই প্রিপারেশান নিতে পারেন।

১০. সবাই নিজ নিজ ধর্মীয় কাজ করুন। দেখবেন মনে প্রশান্তি আসবে। ফলে পড়তেও ভালো লাগবে।

১১. যারা ‘বি’, ‘ই’, ‘জি’ ইউনিটে পরীক্ষা দেবেন তাদের বেশিরভাগই ম্যাথ নিয়ে চিন্তিত। এ তিন ইউনিটেই সাধারণ গণিত অর্থাৎ নবম-দশম শ্রেনির ম্যাথ বই থেকে প্রশ্ন করা হয়। আপনি যেই গ্রুপের স্টুডেন্টই হন না কেনো আপনাকে সাধারণ গণিতের উত্তর করতেই হবে। এটা নিয়ে অনেক স্টুডেন্ট চিন্তিত থাকে। এটা নিয়ে চিন্তিত না হয়ে প্র্যাকটিস করুন যত পারেন।

১২. জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা এ বিশ্ববিদ্যালয়েই হবে। তাই সিট কোথায় পড়েছে এটা নিয়ে টেনশনের কিছু নেই। কার, কোথায়, কখন, কোনদিন পরীক্ষা হবে অর্থাৎ সিট প্ল্যান পরীক্ষার আগের দিন রাতে শিক্ষার্থীর ফোনে মেসেজের মাধ্যমে জানানো হবে এবং ওয়েবসাইটেও দিয়ে দেওয়া হবে।

১৩. পরীক্ষার হলে ভর্তি পরীক্ষার অ্যাডমিট কার্ড, এইচএসসির মূল রেজিস্ট্রেশন কার্ড অবশ্যই সঙ্গে নিয়ে আসতে হবে। যাদের মূল রেজিস্ট্রেশন কার্ড অন্য জায়গায় জমা আছে তাদেরকে রেজিস্ট্রেশন কার্ডের সত্যায়িত ফটোকপি সাথে নিয়ে আসতে হবে।

এ পরামর্শগুলো যথাযথভাবে অনুসরণ করতে পারলে আপনার জন্য জাবিতে চান্স পাওয়া অনেক সহজ হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ্। সকলের জন্য শুভ কামনা।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।