১৯, অক্টোবর, ২০১৯, শনিবার | | ১৯ সফর ১৪৪১

হাত নেই, পা দিয়ে ছবি এঁকে জাতীয় প্রতিযোগিতায় শিশু মোনায়েম

প্রকাশিত: ৮:০৯ অপরাহ্ণ , সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৯

হাত নেই, পা দিয়ে ছবি এঁকে জাতীয় প্রতিযোগিতায় শিশু মোনায়েম

দুই হাত ছাড়া জন্মালেও শারীরিক প্রতিবন্ধকতা আটকাতে পারেনি ফেনীর শিশু আবদুল্লাহ আল মোনায়েমকে। পা দিয়ে ছবি এঁকে জাতীয় প্রতিযোগিতায় জায়গা করে নিয়েছে খুদে এই চিত্র শিল্পী।

উপজেলার ইয়াকুবপুর ইউনিয়নের এনায়েতনগর গ্রামের কামাল উদ্দিনের ছেলে মোনায়েম। তার মা বিবি কুলসুম। ফেনীর দাগনভূঞা একাডেমির তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র সে। নিজের অদম্য ইচ্ছা শক্তি দিয়ে ছবি এঁকে অর্জন করেছে একের পর এক পুরস্কার।

জানাগেছে, ৬ বছর বয়সে মোনায়েমকে স্কুলে ভর্তি করানো হয়। এরপর থেকেই মোনায়েম ভালো ফলাফল করতে থাকে। পা দিয়ে প্রতিদিনের পড়া খাতায় নোট করে। দুই ভাইয়ের মধ্যে মোনায়েম বড়। পড়ালেখার পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অঙ্গণে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে সে।

চিত্রাঙ্কনে আগ্রহ দেখে তার মা তাকে উজ্জীবক আর্ট স্কুলে ভর্তি করায়। জেলা ও উপজেলায় সেরা পুরস্কার লাভ করে জাতীয় প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য নির্বাচিত হয় অদম্য মোনায়েম।

শিশু মোনায়েম জানায়, এমন সাফল্যে খুশি তার পরিবার। বড় হয়ে ইঞ্জিনিয়ার হবে এমন স্বপ্ন সবসময় মনে লালন করছে।

তার মা বিবি কুলসুম জানান, ৭ মার্চ ও ২৬ মার্চ উপলক্ষে চিত্রাঙ্কনে প্রতিযোগিতায় জেলায় দ্বিতীয় হয়েছে মোনায়েম। মাতৃভাষা দিবস ও বিজয় দিবসেও উপজেলায় দ্বিতীয় হয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগ আয়োজিত পুষ্টি সপ্তাহে জেলায় দ্বিতীয়স্থান অর্জন করে। তার সফলতায় সকলের দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

উজ্জীবক আর্ট স্কুলের পরিচালক গিয়াস উদ্দিন বলেন, শিশু মোনায়েমকে পা দিয়ে চিত্রাঙ্কনের প্রশিক্ষণ প্রদান করি। তার ইচ্ছা শক্তি তাকে আরো অনেকদূর নিয়ে যাবে বলে আমি আশা করি।

দাগনভূঞা একাডেমির প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, পড়ালেখায় মনোযোগী হওয়ায় শিক্ষকরা তাকে সবসময় সহযোগিতা করেন।

দাগনভূঞা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম ভূঞা বলেন, শারীরিক প্রতিবন্ধকতা জয় করে মোনায়েম উচ্চতর পড়া শেষ করে কর্মক্ষেত্রে সফল হবে। শারীরিক প্রতিবন্ধকতা কোনো বাধা নয়, তার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত মোনায়েম।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।