১৯, অক্টোবর, ২০১৯, শনিবার | | ১৯ সফর ১৪৪১

ভাল দেশ গড়তে হলে, বাংলাদেশ থেকে শিক্ষা নিতে হবে ভারতকে

প্রকাশিত: ৭:৪৯ অপরাহ্ণ , অক্টোবর ৭, ২০১৯

ভাল দেশ গড়তে হলে, বাংলাদেশ থেকে শিক্ষা নিতে হবে ভারতকে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ৪ দিনের ভারত সফর শেষ করে দেশে ফিরেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সফরকালে ভারতের সাথে ৩টি প্রকল্প ও ৭টি চুক্তি সম্পন্ন করেন প্রধানমন্ত্রী।

সম্প্রতি ভারতের জনপ্রিয় জাতীয় পত্রিকা টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বাংলাদেশ থেকে অর্থনৈতিক উন্নয়নের শিক্ষা নিতে বলা হয়েছে ভারতকে। টাইমস অব ইন্ডিয়ার সম্পাদকীয়তে এসব কথা বলা হয়েছে।

এতে আরো বলা হয়- সুস্পষ্টত, এখন বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সম্পর্ক বহু বিস্তৃত। এটা সম্ভব হয়েছে দুই দেশের নেতৃত্বের মধ্যে সমন্বয়ের কারণে। উপরন্তু, দক্ষিণ এশিয়ার উদ্যম হিসেবে দ্রুত উত্থান ঘটছে বাংলাদেশের। এখানে এ বছর এবং পরবর্তী বছরে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি শতকরা ৮ ভাগের উপরে অর্জিত হবে বলে ধরা হয়েছে।

এখানে এখন মাথাপিছু আয় প্রায় ২০০০ ডলার। এর সঙ্গে, আরো ইঙ্গিত মিলেছে যে, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে বাণিজ্যিক যুদ্ধের কারণে সুবিধা পেয়েছে বাংলাদেশ। এতে ২০১৮ সালে দেশটির রপ্তানি বৃদ্ধি পেয়ে এ বছর দাঁড়িয়েছে শতকরা ১০.১ ভাগ।

টাইমস অব ইন্ডিয়া লিখেছে, ঐতিহাসিক কারণে, ভারতের পররাষ্ট্রনীতিতে বেশি দৃষ্টি রাখা হচ্ছে পাকিস্তানের দিকে। কিন্তু অর্থনৈতিক অধিক পরিমাপকে পাকিস্তানকে নীরবে উৎরে গেছে বাংলাদেশ। তাই এখন সময় এসেছে বাংলাদেশ বিষয়ে ভারতের দৃষ্টিভঙ্গি বদলের।

বাংলাদেশ এখন আর একটি দরিদ্র দেশ নয়, দুর্ভিক্ষকবলিত দেশ নয়। উল্টো, যথার্থই দক্ষিণ এশিয়ার একটি ‘গ্রোথ ইঞ্জিন’ বাংলাদেশ। ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ককে অব্যাহত রাখতে ভারতীয় নেতৃত্বকে অবশ্যই এনআরসির মতো প্রকল্প ঠেলে দেয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এনআরসির বিষয়ে শেখ হাসিনাকে নিশ্চয়তা দেয়া সত্ত্বেও, দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কে টান ফেলেছে এই ইস্যু।

অর্থনীতিতে ভাল করছে বাংলাদেশ। তাই অবৈধ অভিবাসীদের ঠেলে দেয়ার মূল ফ্যাক্টরটি আর বিদ্যমান নেই। প্রকৃতপক্ষে, ঢাকার সফলতা থেকে শিক্ষা নেয়া উচিত নয়া দিল্লির এবং নিজের অর্থনীতিকে উন্নত করতে সংস্কারের দিকে দৃষ্টি দেয়া উচিত।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।