১৬, অক্টোবর, ২০১৯, বুধবার | | ১৬ সফর ১৪৪১

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে আমলকি

প্রকাশিত: ৪:০৮ অপরাহ্ণ , অক্টোবর ৮, ২০১৯

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে আমলকি

সিএনআই  ডেস্কঃ আমলকির গুণের কথা আমরা অনেকেই জানি। ভেষজ গুণে পরিপূর্ণ অনন্য একটি ফল হলো আমলকি। এই ফল ও পাতা দুটোই ওষুধ রূপে ব্যবহার করা হয়। কোষ্ঠকাঠিন্য ও পাইলসের সমস্যা দূর করা থেকে শুরু করে বিভিন্ন রোগ সারানোর পাশাপাশি আমলকি রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তুলতে খুবই কার্যকরী।

আমলকিতে আছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন ‘সি’। পুষ্টি বিজ্ঞানীদের মতে, আমলকিতে আপেলের চেয়ে ১২০ গুণ বেশি, কলার চেয়ে ৬০ গুণ বেশি, আমের চেয়ে ২৪ গুণ বেশি, কমলার চেয়ে ১৫-২০ গুণ বেশি, লেবুর চেয়ে ১০ গুণ বেশি ও পেয়ারার চেয়ে তিন গুণ বেশি ভিটামিন ‘সি’ রয়েছে।

চলুন জেনে নেয়া যাক, আমলকি খাওয়ার ১০টি উপকারিতা সম্পর্কে-

১. আমলকির রস পাইলস সমস্যা ও কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। পাশাপাশি পেটের সমস্যা এবং বদহজম রুখতে ভূমিকা রাখে।

২. আধা চূর্ণ শুষ্ক আমলকি এক গ্লাস পানিতে ভিজিয়ে খেলে হজম সমস্যা দূর হবে। এছাড়াও খাবারের সঙ্গে আমলকির আচার হজমে সাহায্য করে।

৩. আমলকি চুলের পরিচর্যার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। আমলকি চুলের গোড়া মজবুত করে, চুলের বৃদ্ধিতেও সাহায্য করে, চুলের খুসকির সমস্যা দূর করে এবং পাকা চুল প্রতিরোধ করে।

৪. প্রত্যেক দিন সকাল বেলা আমলকির রসের সঙ্গে মধু মিশে খেলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়বে ও ত্বকের কালো দাগ দূর হবে।

৫. আমলকির রস দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। পাশাপাশি চোখের বিভিন্ন সমস্যা যেমন- চোখের প্রদাহ, চোখ চুলকানি, চোখের পানি পড়ার সমস্যা দূর করে। এককথায় আমলকি চোখ ভালো রাখার জন্য খুবই উপকারী।

৬. এক গ্লাস পানি বা দুধের মধ্যে আমলকি গুঁড়ো ও সামান্য চিনি মিশিয়ে দিনে দুই বার খেতে পারেন। এতে অ্যাসিডেটের সমস্যা কম রাখতে সাহায্য করবে।

৭. আমলকি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় ও মানসিক চাপ কমায়। ব্রঙ্কাইটিস ও অ্যাজমার জন্য আমলকির জুস অনেক উপকারী।

৮. দৈনিক আমলকির রস খেলে দাঁত শক্ত থাকে এবং নিশ্বাসের দুর্গন্ধ দূর হয়। আমলকির টক তেতো মুখে রুচি ও স্বাদ বাড়ায়। এছাড়া রুচি বৃদ্ধি ও ক্ষুধা বাড়ানোর জন্য আমলকির গুঁড়োর সঙ্গে সামান্য মধু ও মাখন মিশিয়ে খাওয়ার আগে খেতে পারেন।

৯. আমলকি ব্লাড সুগার লেভেল নিয়ন্ত্রণে রেখে ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। কোলেস্টেরল লেভেলেও কম রাখাতে যথেষ্ট সাহায্য করে আমলকি।

১০. আমলকি শরীরের কার্যক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে, শরীর ঠান্ডা রাখে। শরীরের ফ্যাট ঝরাতে সাহায্য করে ও পেশি মজবুত করে। এছাড়াও হৃদযন্ত্র, ফুসফুসকে শক্তিশালী করে ও মস্তিষ্কের শক্তিবর্ধন করে। আমলকির আচার মস্তিষ্ক ও হৃদযন্ত্রের দুর্বলতা দূর করে।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।