১৬, অক্টোবর, ২০১৯, বুধবার | | ১৬ সফর ১৪৪১

বিদ্যালয়ে পাঠিয়ে আতঙ্কে থাকে অভিবাবকরা

প্রকাশিত: ৪:১৯ অপরাহ্ণ , অক্টোবর ৯, ২০১৯

বিদ্যালয়ে পাঠিয়ে আতঙ্কে থাকে অভিবাবকরা

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি: স্কুলে ছেলে মেয়ে পাঠিয়ে আতঙ্কে থাকতে হয় অভিবাবকদের। স্কুল ভবন বাড়ান্দা ঘেষেই মৃত্যুফাঁদ গভির পুকুর। ছোট ছোট কোমলমতি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা প্রতিনিয়ত যাতায়াত করছে। অজ্ঞাত কারনে স্থানীয় সচেতন মহল আজ নিশ্চুপ। ওই ভয়ংকর পরিবেশটি গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার টেকিবাড়ি চানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চিত্র।

সরেজমিনে দেখা যায়, বাংলাদেশ সরকারের আর্থিক অনুদানে ঝকঝকে করা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে বিশাল এক গভীর পুকুর। যেখানে থাকার কথা ছিল শিক্ষার্থীদের খেলার মাঠ। বিদ্যালয়ের নির্দিষ্ট কোন রাস্তা না থাকায় পুকুরের পাড় ব্যবহার করে চলাচল করে শিক্ষার্থীরা। বিদ্যালয়ের বাড়ান্দায় তাদের খেলার মাঠ। সাতার না জানা এসব শিক্ষার্থী যেন মৃত্যুর সাথে প্রতিনিয়ত খেলা করছে।

স্থানীয় লোকজন জানায়, দীর্ঘদিন যাবত এমন অবস্থা চলে আসছে। বিদ্যালয়ের জায়গা না থাকায় এই মাঠ ভরাট করা সম্ভব হচ্ছে না। খনন করে রাখা পুকুরটি স্থানীয় জামে মসজিদের সম্পত্তি। পুকুরটি ভরাট করা হলে একই সাথে এটা শিক্ষার্থীদের খেলার মাঠ হবে, ঈদ গা মাঠ হবে, জানাজা নামাজের মাঠ হবে বলেও জানিয়েছে এলাকাবাসী।

ওই এলাকার মালেক মিয়া জানান, শিক্ষার্থীদের জন্য ওই পুকুরটি একটা আতঙ্ক। এটা ভরাট করা খুবই দরকার।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জানান, এ ব্যপারে আমরা আবেদন করেছি কোন কাজ হয় নি। জায়গাটা পাশের মসজিদের। আমরা ভরাট করতে পারিনা। নেত্রীস্থানীয়দের বলেছি তাতেও লাভ হয়নি।

এ ব্যপারে প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার রমিতা ইসলাম বলেন, আমি এরকম ঘটনা জানিনা। আমাকে কেউ জানায় নি। আমি দেখতে যাব, তারপর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।