১৯, নভেম্বর, ২০১৯, মঙ্গলবার | | ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

দিনাজপুরে ডিজিটাল আইনে দুই সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ!

প্রকাশিত: ৫:০৪ অপরাহ্ণ , অক্টোবর ২৫, ২০১৯

দিনাজপুরে ডিজিটাল আইনে দুই সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ!

দিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুর বীরগঞ্জে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে প্রবীন দুই সাংবাদিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার দুপুরে আটক সাংবাদিক দ্বয়কে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে প্রেরন করেছে পুলিশ ।

গ্রেফতার সাংবাদিকরা হলেন, পৌর শহরের মৃত কফিল উদ্দিনের ছেলে মোঃ আবেদ আলী (৫৫) এবং একই এলাকার দক্ষিণ সুজালপুর গ্রামের মৃত আব্দুল কাদেরের ছেলে মোঃ মোশারফ হোসেন (৪৫)। সাংবাদিক আবেদ আলী দৈনিক করতোয়া পত্রিকায় উপজেলা প্রতিনিধি। তবে মোঃ মোশারফ হোসেন কোন পত্রিকার প্রতিনিধি তা জানা যায়নি।

বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ আব্দুল খালেক সরকার দুই জন সাংবাদিকসহ আট জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাতেই দুই সাংবাদিককে গ্রেফতার করে এবং তাদের বাড়ী থেকে ল্যাপটপসহ কাগজপত্র উদ্ধার করেন বলেন জানান।

মামলা সূত্রে জানা যায়, মিথ্যা অভিযোগের প্রেক্ষিতে সাংবাদিক আবেদ আলী ও মোশারফ হোসেন চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক সরকারের কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। চেয়ারম্যান তাদের চাঁদার দাবিকৃত ৫০ হাজার টাকা না দিতে পারায় আবেদ আলী তাঁর ফেসবুক আইডিতে নিজপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম এ আব্দুল খালেক সরকার-কে জড়িয়ে একটি ধর্ষনের সংবাদ পোষ্ট করে। ইউপি চেয়ারম্যান এম এ আব্দুল খালেক সরকার সম্মান হানীর কারনে তিনি বীরগঞ্জ থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ এর-২৫ (ক) (খ)/২৯/৩১/৩৫ ধারা মোতাবেক একটি মামলা দায়ের করেন। যাহার মামলা নং ২০, তাং-২৪/১০/২০১৯ ইং।

এর আগে বৃহস্পতিবার বীরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ সমন্বয় সভায় উপজেলা পরিষদের সমন্বয় সভায় উপস্থিত অনেকে সাংবাদিক আবেদ আলী ও মোশারফ হোসেনের বিরুদ্ধে অনৈতিক কার্যকলাপের অভিযোগ করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে সাংবাদিক আবেদ আলী ও মোশারফ হোসেনের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয় বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইয়ামিন হোসেন।

এ ব্যাপারে বীরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ সাকিলা পারভিন জানান, আটকরা সাংবাদিকতার আড়ালে চাদাঁবাজিসহ নানা অপকর্মের সাথে জড়িত। বেসকারী টেলিভিশন ডিবিসি সাংবাদিকদের উপর হামলা এবং দুইটি চাঁদাবাজি মামলাসহ তাদের বিরুদ্ধে বীরগঞ্জ থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। চাঁদা না দিলে মিথ্যা সংবাদ তৈরি করে ফেসবুক আইডিতে পোষ্ট করেন বলে তিনি জানান।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।