১৯, নভেম্বর, ২০১৯, মঙ্গলবার | | ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

৪ দিন পর কুয়া থেকে সেই শিশুর পচা-গলা দেহ উদ্ধার!

প্রকাশিত: ১২:২৫ অপরাহ্ণ , অক্টোবর ২৯, ২০১৯

৪ দিন পর কুয়া থেকে সেই শিশুর পচা-গলা দেহ উদ্ধার!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বছর চারেক আগে ঢাকার শাহজাহানপুরে ২৩৫ ফুট গভীর পরিত্যক্ত পাইপের মধ্যে পড়ে গিয়েছিল শিশু জিহাদ।সেই শিশুটি কথা নিশ্চই মনে আছে? প্রায় দুই দিন আটকা থাকার পর উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছিল চার বছরের শিশুটিকে। তবে জীবিত নয়, উঠে এসেছিল তার নিথর দেহটি।অনেকটা একই ধরনের ঘটনা ঘটেছে এবার পাশের দেশ ভারতে।

বাঁচতে পারল না ২ বছর বয়সী সুজিত উইলসন। নলকূপ বসানোর জন্য অন্তত তিনশো ফুট গভীর গর্ত খোঁড়া হয়েছিল। শুক্রবার বিকেলে খেলতে খেলতে সেই গর্তে পড়ে যায় শিশুটি। গর্তে পড়ে যাওয়ার এক ঘণ্টার মধ্যেই খবর পেয়ে তাকে উদ্ধারে অভিযান শুরু হলেও শিশুটিকে জীবিত উদ্ধার করা যায়নি। অবশেষে চারদিন পর ভারতের তামিলনাড়ুর ওই শিশুটির পচা-গলা দেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

প্রায় ৪ দিন আটকে থাকার পর মঙ্গলবার ভোরে সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তামিলনাড়ুর তিরুচিরাপল্লীর শিশু সুজিত মারা গেছে। তার মরদেহ একেবারে পচে গলে গেছে। এক কর্মকর্তা বলেন, কর্তৃপক্ষ শিশুটিকে উদ্ধারের জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করেছিল। কুয়ার ভেতরে লাশ দেখতে পাওয়ার পরেই খনন প্রক্রিয়া বন্ধ করে দেওয়া হয়।

সোমবার রাতে সরকারি কর্মকর্তারা জানান, শিশুটিকে উদ্ধারের আগেই কুয়া থেকে দুর্গন্ধ আসতে দেখে তারা বুঝতে পারেন ছোট্ট শিশুটি বেঁচে নেই। কর্মকর্তারা পরে সুজিত উইলসনের মরদেহ কুয়া থেকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠান।

সুজিত ২৬ ফুট গভীরে আটকা পড়েছিল কিন্তু পরে উদ্ধারকারীরা তাকে দড়ি দিয়ে টানতে চেষ্টা করলে সে আরও পিছলে ৭০ ফুট গভীরে পড়ে যায়। উদ্ধারকারীদের দলটি শিশুটির কাছে পৌঁছানোর জন্য কুয়ার সমান্তরালে এক মিটার প্রশস্ত আরেকটি সুড়ঙ্গ খোঁড়েন। তবে পাথুরে জমির কারণে কাজের অগ্রগতি খুবই ধীর গতিতে হয়েছে। তবে শেষ পর্যন্ত সব চেষ্টা ব্যর্থ করে জীবনযুদ্ধে হেরে গেল ছোট্ট শিশুটি।


সিএনআই’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।