সোমবার, ২৫শে মে, ২০২০ ইং

আ’লীগের অধিকাংশ নেতার ঈদই এবার ঢাকায়

সিএনআই ডেস্ক: আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবরের মতো এবারের ঈদও উদযাপন করবেন ঢাকায় তার সরকারি বাসভবন গণভবনে। তবে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ শীর্ষ নেতাদের বেশিরভাগই আগে নিজের এলাকায় ঈদ করলেও এবার অধিকাংশেরই থাকতে হচ্ছে ঢাকায়। করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে নিজের বাসায়ই ঈদ করবেন নেতারা। দলীয় সূত্রে জানা যায়, প্রতি ঈদের দিন আওয়ামী লীগসহ রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, বিদেশি কূটনীতিক, পেশাজীবীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন প্রধানমন্ত্রী। তবে এবার করোনাভাইরাসের কারণে ঈদের দিন কোনো আনুষ্ঠানিক কর্মসূচি রাখা হয়নি। গণভবন সূত্রে জানা গেছে, ঈদে আনুষ্ঠানিক কর্মসূচি না থাকলেও ফোনে ও ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছ বিনিময় করবেন প্রধানমন্ত্রী। এদিকে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর জ্যেষ্ঠ সদস্য ও সংসদ উপনেতা সাজেদা চৌধুরী শারীরিকভাবে অসুস্থ। ফলে এবারও ঢাকায়ই ঈদ করবেন তিনি। এছাড়া আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমির হোসেন আমু রাজধানীর ইস্কাটনের বাসায় এবং উপদেষ্টা পরিষদের আরেক সদস্য তোফায়েল আহমেদ বনানীর বাসায় ঈদ উদযাপন করবেন। তবে ঈদের আগে ও পরে নির্বাচনী এলাকার মানুষের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন তারা। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরও ঢাকায় ঈদ করবেন। রাজধানীর সংসদ ভবন এলাকায় সরকারি বাসভবন থেকেই ঈদের দিন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী এবং এলাকার মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন তিনি। ঈদে নিজ এলাকা সিরাজগঞ্জের কাজীপুরে যাবেন না সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম। তিনি এ বছর ঢাকার ধানমন্ডির বাসভবনে ঈদ করবেন। সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী ও লে. কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খানও ঈদ করবেন ঢাকায়। সভাপতিমণ্ডলীর অন্য সদস্যদের মধ্যে কাজী জাফর উল্লাহ, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আব্দুর রহমানও রাজধানী ঢাকায়ই ঈদ করবেন। আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদকদের মধ্যে মাহবুব-উল আলম হানিফ ঈদ করবেন কুষ্টিয়ায়। তিনি ইতোমধ্যে নিজ নির্বাচনী এলাকা কুষ্টিয়া সদরে চলে গেছেন। আরেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ঈদ করবেন ঢাকায়। এছাড়া প্রতি বছর নিজ এলাকা চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় ঈদ করলেও করোনাভাইরাসের কারণে যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদকেও এবার রাজধানী ঢাকায়ই ঈদ করতে হচ্ছে। সাংগঠনিক সম্পাদকদের মধ্যে বিএম মোজাম্মেল হক ও এসএম কামাল ঈদ করবেন রাজধানীর ধানমন্ডির নিজ বাসভবনে। এছাড়া বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সবুর, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, আইন বিষয়ক সম্পাদক নজিবুল্লাহ হিরু ঈদ করবেন ঢাকায়। তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ প্রতি বছর নিজ নির্বাচনী এলাকায় ঈদ করলেও ভিন্ন পেক্ষাপটের কারণে এবার তাকেও ঈদ করতে হচ্ছে ঢাকায়। এছাড়া আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির অন্য সদস্যদের মধ্যেও প্রায় সবাই এবার রাজধানী ঢাকায়ই ঈদ করছেন। করোনাভাইরাসের এই সংকটকালে ঈদ সামনে রেখে বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে আওয়ামী লীগের অঙ্গ, সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতীম সংগঠনগুলো। এসব সংগঠনের শীর্ষ নেতাদের মধ্যেও প্রায় সবাই এবার ঈদ করছেন রাজধানীতেই।