শুক্রবার, ২৯শে মে, ২০২০ ইং

অবশেষে বেতন পেল সাকিবের কাকড়া ফার্মের শ্রমিকরা

সিএনআই ডেস্ক: আন্দোলন, বিক্ষোভের পর অবশেষে বেতন পেল সাতক্ষীরার শ্যামনগরে জাতীয় দলের ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের অ্যাগ্রো ফার্ম লিমিটেডের শ্রমিকরা। বুধবার (২২ এপ্রিল) বিকালে ১৫০ জন শ্রমিকের যাবতীয় পাওনা হিসেবে ১৯ লাখ ৫৪ হাজার টাকা পরিশোধ করা হয়। যার সম্পূর্ণটাই সাকিবের পক্ষ থেকে দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। সাকিবের পক্ষ থেকে সেখানে শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধে মধ্যস্থতা করেন সাতক্ষীরা জেলা ফুটবল ফেডারেশন ও সাতক্ষীরা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ নাসেরু হক, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক মুশফিকুর রহমান মিল্টন, জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাহী সদস্য খন্দকার আরিফ হাসান প্রিন্সসহ চিংড়ি বাংলা একাডেমির তিনজন কর্মকর্তা। সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাহী সদস্য খন্দকার আরিফ হাসান প্রিন্স জানান, শ্রমিকদের আন্দোলনের বিষয়টি মিডিয়ায় আসলে ঢাকা থেকে একজন ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব সাতক্ষীরা জেলা ফুটবল ফেডারেশন ও সাতক্ষীরা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ নাসেরুল হকের সঙ্গে যোগাযোগ করে বিষয়টি দেখভাল করার অনুরোধ জানান। নির্দেশনা পেয়ে তিনি মঙ্গলবার সাকিবের কাঁকড়া ফার্মে যান এবং সার্বিক খোঁজখবর নিয়ে আসেন। বুধবার দ্বিতীয় দিনের মতো তিনি সেখানে যান এবং ১৫০ জন শ্রমিককে ডেকে তাদের পাওনা বুঝিয়ে দেন। এ সময় সেখানে ফার্মের তত্ত্বাবধায়ক সগীর হোসেন পাভেল ও ম্যানেজার সালাউদ্দিন উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে আইলা বিধ্বস্ত এলাকার মানুষের কর্মসংস্থানের কথা চিন্তা করে বুড়িগোয়ালিনীতে রপ্তানিমুখী কাঁকড়া ফার্ম গড়ে তোলেন সাকিব। গত ৪ বছর ভালোই চলেছে। কিন্তু বর্তমানে করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে কাঁকড়া রপ্তানি বন্ধ হয়ে যায়। গত জানুয়ারিতে সর্বশেষ বেতন পান শ্রমিকরা। এর মধ্যে শ্রমিকদের বকেয়া পরিশোধের জন্য কয়েকবার দিন পরিবর্তন করে ফার্ম সংশ্লিষ্টরা। সর্বশেষ ৩০ এপ্রিল বকেয়া পরিশোধের জন্য সময় নিয়েছিল তারা। এর মধ্যে হঠাৎ সোমবার (২০ এপ্রিল) বকেয়া পরিশোধের দাবিতে ফার্মের সামনে বিক্ষোভ শুরু করে শ্রমিকরা। যার খবর বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। তবে, শ্রমিকদের পাওনার বিষয়ে কিছুই জানতেন না সাকিব আল হাসান। যা তিনি সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে জানান দিয়েছেন।