২৩, আগস্ট, ২০১৯, শুক্রবার | | ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

অবসরের পর রাজনীতিতে আসতে পারেন ধোনি!

মহেন্দ্র সিং ধোনি অবসরের পরে সম্ভবত রাজনীতিতে যোগ দিচ্ছেন। এখবর এখন পুরনো। বাইশ গজকে বিদায় জানালেই যে ধোনি বিজেপিতে নাম লেখাতে পারেন, তা নিয়েও বেশ কিছুদিন ধরেই চলছে গুঞ্জন। তবে ঘটনার ট্যুইস্ট অন্যত্র। ধোনি শুধু বিজেপিতেই যোগ দেবেন না, ঝাড়খণ্ডের আসন্ন নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রীর পদপ্রার্থীও হচ্ছেন তিনি। এবার এমনটাই জল্পনা শুরু হয়েছে। যা নিয়ে এখন রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে ভারতীয় ক্রীড়ামহলে। কিছুদিন আগেই ঝাড়খণ্ডের বিজেপি নেতা সঞ্জয় পাসোয়ান দাবি করেছিলেন, ধোনির সঙ্গে বিজেপি “বহুদিন” কথাবার্তা চালাচ্ছে, তবে ধোনি বিজেপিতে যোগ দেবেন একমাত্র অবসরের পরেই। পাশাপাশি, তিনি আরও জানিয়েছিলেন, “ধোনি আমার ব্যক্তিগত বন্ধু। বিশ্বজুড়েই ধোনির খ্যাতি রয়েছে। তাই পার্টিতে বহুদিনই ধোনিকে নিয়ে আসার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।” বিশ্বকাপ চলাকালীনই ধোনির অবসর নিয়ে গুঞ্জন উঠেছিল। পরে ধোনি নিজেই তা খণ্ডন করেন। তবে বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল থেকে ভারত ছিটকে যাওয়ার পরে বোর্ডের তরফে ধোনিকে অবসরের জন্য চাপ দেওয়া শুরু হয়েছে বলে খবর। বোর্ডের এক কর্তা সোমবারেই একথা জানিয়েছেন সর্বভারতীয় এক প্রচারমাধ্যমে। জানানো হয়েছে, ধোনি সম্মানের সঙ্গে অবসর না নিলে হয়তো জাতীয় দল থেকেও বাদ পড়তে পারেন। এমন অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে, ধোনি কবে অবসর নেন, সেটাই দেখার। সামনেই ঝাড়খণ্ডের বিধানসভা নির্বাচন। কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে, সেই নির্বাচনে এবার বিজেপি মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়ে অভিনব পরিকল্পনা করেছিল। প্রথমে ঠিক ছিল, ঝাড়খণ্ডের বিধানসভা নির্বাচনের ম্যাসকট হিসেবে ধোনিকে রাজনীতির ময়দানে নামানোর পরিকল্পনা বিজেপির। তবে এবার পরিস্থিতি বদলে যাওয়ায় সরাসরি ধোনিকে মুখ্য়মন্ত্রীর চেয়ারেই বসাতে চাইছে বিজেপি। যার ইঙ্গিত দিয়েছেন ঝাড়খণ্ডের ওই বিজেপি নেতা। সব মিলিয়ে ধোনির অবসরের জল্পনার সঙ্গেই এবার যুক্ত হল নয়া গুজব। এটা সত্যি কিনা, তা সময়ই বলবে।