১৫, ডিসেম্বর, ২০১৯, রোববার | | ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১

বাবার মাথা গোঁজার ঠাঁই টুকুও কেড়ে নিলো পাষন্ড সন্তানরা!

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহ সদর উপজেলায় সন্তানদের অত্যাচারে ৭৫ বছরের বৃদ্ধ এখন অসহায়। প্রতিনিয়ত মারধর করে ছেলে ও পুত্রবধূরা। নিরুপায় হয়ে বাড়ি ছেড়েছিলেন বৃদ্ধ মহসিন আলী। মাঠে অর্ধশত বিঘা জমি, গোয়াল ভরা গরু, পুকুর ভরা মাছ ও বিত্ত বৈভবের কমতি ছিল না। ছেলেদের চাপে নিজের ৫২ বিঘা জমি সন্তানদের মধ্যে বণ্টন করে দেন এলাকার মাতুব্বরদের কথায়। জমি বণ্টনের পর থেকে অত্যাচার শুরু হয় হাজী মহসিনের ওপর। মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেয় দুই ছেলে মিলন ও মোফাজ্জেল। বৃদ্ধের মাথা গোঁজার ঠাঁই বাড়িটিও ভেঙে ফেলে তারা। বৃদ্ধ মহসিনের বাড়ি ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ৩নং সাগান্না ইউনিয়নের গিলেপোল গ্রামে। হাজী মহসিন অভিযোগ করেন, সন্তানরা তার দেখভাল করবে তিনবেলা খাবার ও ওষুধপত্র দেবে- এই শর্তে মাতুব্বররা তার ৫২ বিঘা জমি ৫ সন্তানের মধ্যে বণ্টন করে দেন। কিন্তু কিছুদিন যেতে না যেতেই তার ওপর নির্মম নির্যাতন চলতে থাকে। ছেলে মিলন ও মোফাজ্জেল এলাকায় প্রভাশালী হওয়ায় তারা ও তাদের স্ত্রীরা বৃদ্ধ মহসিন আলীর ওপর নির্যাতন শুরু করে। এ ভাবে নির্যাতন করতে করতে তাকে হত্যা করা হতে পারে বলেও তিনি আশংকা প্রকাশ করেন। বাকি ৩ সন্তান মিলন ও মোফাজ্জেলের ভয়ে প্রতিবাদ করতে পারে না বলে প্রতিবেশিরা জানান। হাজী মহসিন বলেন, তিনি বৃদ্ধ বয়সে প্রশাসনের কাছে সাহায্য চেয়েছেন। তার বুকফাটা আর্তনাদ শুনে পথচারীদের ভিড় জমতে থাকে।