৬, ডিসেম্বর, ২০১৯, শুক্রবার | | ৮ রবিউস সানি ১৪৪১

ভোলা-বরিশাল সেতু নির্মাণ বাস্তবায়নের পথে

ভোলা প্রতিনিধি: ভোলাবাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্ন ভোলা-বরিশাল ব্রীজ ও সেতু নির্মান বাস্তবায়নের পথে এগোচ্ছে। এ লক্ষে সেতু মন্ত্রনালয়ের সচিব মোঃ বেলায়েত হোসেনের নেতৃত্বে উচ্চ পর্যায়ের একটি প্রতিনিধি দল বৃহস্পতিবার ভোলায় আসেন। তারা সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ভোলা-বরিশাল ব্রীজ নির্মান প্রস্তাবনার অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় অংশ নেন। জেলা প্রশাসক মোঃ মাসুদ আলম সিদ্দীকের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভোলা-১ আসনের এমপি তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, ভোলা একটি বিচ্ছিন্ন দ্বীপ। মনোরম পরিবেশের একটি নৈসর্গিক চমৎকার জেলা। দেশের দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চলের উন্নয়নের লক্ষে ভোলা-বরিশাল ব্রীজ ও সেতু নির্মানে বরিশালের জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষনার পরিপ্রেক্ষিতে সেতু মন্ত্রনালয়ের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল ভোলাবাসীর স্বপ্ন ভোলা-বরিশাল ব্রীজ র্নিমানের প্রাথমিক কাজ শুরু করেন। তারা এর সম্ভাব্যতা যাচাইর কাজও শেষ করেন। তাই ভোলা-বরিশাল ব্রীজ ও সেতু নির্মান হবেই। তোফায়েল বলেন, শুধু ভোলা-বরিশাল ব্রীজই নয়, ভোলা-ল²ীপুর ব্রীজ ও সেতু নির্মান করা হবে। তখন ভোলা হবে দেশের সর্বশ্রেষ্ঠ সমৃদ্ধশালী শিল্পান্নয়ন জেলা। ভোলা-বরিশাল ব্রীজ নির্মান প্রস্তাবনার অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় সেতু সচিব মোঃ বেলায়েত হোসেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী পদক্ষেপের ফলে পদ্মাসেতু আজ দৃশ্যমান। পদ্মা সেতুর চেয়েও ভোলা-বরিশাল ব্রীজ ও সেতু বড় হবে। এখানে প্রায় ১২৮ কিলোমিটার পর্যন্ত ক্যাবল ব্রীজ করতে হবে। তাই, এটা কঠিন হলেও অসম্ভব নয়। ইতিমধ্যে ভোলা-বরিশাল ব্রীজ নির্মানের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ শেষ হয়েছে। সেতু সচিব আরো বলেন, দেশে আর্থিক সক্ষমতা বেড়েছে। বেড়েছে কারিগড়ি সক্ষমতাও। ২০৪১ সালের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর রুপকল্প বাস্তবায়নের জন্য সড়ক যোগাযোগের কোন বিকল্প নেই। তাই শুধু ভোলা-বরিশাল সেতু নয়, ভোলা-ল²ীপুর নৌ রুটেও ব্রীজ ও সেতু নির্মান করা হবে। আমাদের মেন্ডেট অনুযায়ী তখন দেশের কোন জেলা আর বিচ্ছিন্ন থাকবেনা। সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে ভোলা-৩ আসনের এমপি নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন, খাদ্য সচিব শাহাবুদ্দিন, ভূমি সচিব মাকসুদুর রহমান পাটওয়ারী ও সেতু মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব, যুগ্ম সচিবসহ মন্ত্রনালয়ের উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া ভোলা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মমিন টুলু, ভোলা পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, বিভিন্ন উপজেলার উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউপি চেয়ারম্যান, বিভিন্ন দপ্তরের সরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ, ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। পরে সেতু মন্ত্রনালয়ের সচিব মোঃ বেলায়েত হোসেনের নেতৃত্বে উচ্চ পর্যায়ের একটি প্রতিনিধি দল ভোলা সদর উপজেলার ভেলুমিয়া সরেজমিন পরিদর্শন করেন।