১৭, অক্টোবর, ২০১৯, বৃহস্পতিবার | | ১৭ সফর ১৪৪১

নির্যাতনের পর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর মাথা ন্যাড়া করলো স্বামী

পটুয়াখালী প্রতিনিধি: যৌতুকের টাকা না পেয়ে পটুয়াখালীর বাউফলে বুধবার তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধূকে মারধর করে মাথা ন্যাড়া করে দিয়েছে তার স্বামী। এঘটনায় অভিযুক্ত স্বামী তাপস চন্দ্র হাওলাদারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার দুপুরে উপজেলার কালাইয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। প্রিয়াঙ্কা রানি বলেন, পারিবারিকভাবে আমাদের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে আমাকে নির্যাতন করত স্বামী। আমি তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা জানা সত্ত্বেও স্বামী মারধর করে মাথা ন্যাড়া করে দিয়েছে। বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, প্রিয়াঙ্কা বাদী হয়ে একটি যৌতুক মামলা দায়ের করেছেন। এতে অভিযুক্ত স্বামী তাপস চন্দ্র হাওলাদারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. নাঈম জানান, রাতে হাসপাতালে নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধূ প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে চলে গেছেন। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০১২ সালে উপজেলার আদাবাড়িয়া হাজিরহাট এলাকার বাসিন্দা সুশীল কর্মকারের মেয়ে প্রিয়াঙ্কা রানির সঙ্গে কালাইয়া এলাকার প্রিয়লাল হাওলাদারের ছেলে তাপস চন্দ্রের বিয়ে হয়। এরপর থেকে প্রায়ই যৌতুকের টাকার জন্য তাপস প্রিয়াঙ্কাকে মারধর করতেন। বুধবারও তিনি টাকার জন্য চাপ দেন। তবে তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ প্রিয়াঙ্কা রানি অস্বীকৃতি জানালে তাকে বাড়ির খুঁটির সঙ্গে হাত বেঁধে মারধর করে মাথা ন্যাড়া করে দেয়। দুপুরে তিনি পালিয়ে স্বামীর বাড়ি থেকে বাবার বাড়ি যান। এ ঘটনায় বুধবার রাতে প্রিয়াঙ্কা বাদী হয়ে বাউফল থানায় একটি যৌতুক মামলা দায়ের করেন।